Print Print

২০৫০ সালের মধ্যে পৃথিবীতে দেখা যাবে যে ৯ টি দুর্যোগ- যার ফলে মানবসভ্যতা পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যাবার আশঙ্কা করছেন বিজ্ঞানীরা

Songbad Saradin Desk::ভবিষ্যৎ সম্পর্কে জানার জন্য মানুষ সবসময়ই আগ্রহী। আর এই কারনেই মানুষ জ্যোতিষ শাস্ত্র হস্তরেখা বিচার প্রভৃতির মাধ্যমে নিজের ভবিষ্যৎ পূর্বাভাস অধ্যায়ন করে । তবে এক্ষেত্রে গবেষণা ও বৈজ্ঞানিক পদ্ধতির মাধ্যমে যে ভবিষ্যত নির্ধারিত হয় তা সবসময়ই সত্য হয়। গবেষকদের মতে মানব সভ্যতায় আসতে চলেছে ভয়াবহ ৯টি দুর্যোগ। চলুন দেখে নেয়া যাক সেই দুর্যোগ সম্পর্কে: –

1. ২০২০হিলিয়াম খনি: হিলিয়াম ৩ খুব বিরল একটি উপাদান যা চাঁদের উপর প্রাচুর্য বিদ্যমান। এটি খুব হালকা ও ও তেজস্ক্রিয় আইসোটোপ যাতে একটি প্রোটন ও ২টো নিউট্রন রয়েছে। হিলিয়াম ৩ অনুসন্ধানে চাঁদে খনন করার পরিকল্পনা নিয়েছেন রাশিয়ান ফেডারেল স্পেস এজেন্সি যাতে খরচ হবে প্রায় চার বিলিয়ন ডলার। ফলে দেশের রাজ কোষাগারে টান পড়ার সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে।

2.২০২৩ মঙ্গল গ্রহে বসতি স্থাপন: বেসরকারি একটি ডেন্টাল স্পেস হাই ফার্ম ২০২৩ সালে মঙ্গল গ্রহে 4 জন মানুষকে পাঠাবেন এবং সেখানে তাদেরকে তারা স্থায়ীভাবে বসবাস করবেন যা মানব জাতির কাছে একটা বড় খোঁজ।

৩.২০২৫ মাসদার র্সিটি:২০২৫ সালের মধ্যে মাসদার সিটি সম্পন্ন হবে বলে মনে করা হচ্ছে এব়ং সেখানে ই 100% বজ্য ও জল পুনর্ব্যবহার করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। এক দীর্ঘস্থায়ী শক্তির উপর ভিত্তি করে এটি তৈরি হবে এবং ইহা হবে কার্বন নিরপেক্ষ শহর। কিন্তু এটি তৈরি করতে খরচ হবে£২০ বিলিয়ান।

৪.২০৩০ বিশ্বব্যাপী সম্পদ সংকট:২০৩০ সালে সকল গুরুত্বপূর্ণ সম্পদের ঘাটতি দেখা যাবে এমনকি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য গুলিতে প্রায় তিন মিলিয়ন মানুষের দারিদ্রতা লক্ষ্য করা যাবে। এই সংকটের সাথে যদি খরা বা বন্যা যায় দেখা যায় তাহলে এই দারিদ্র মানুষের সংখ্যা আরো বহুগুণ বেড়ে যাবে যা সরকারের পক্ষে সামলানো সম্ভব হবে না।

৫.২০১৭ সবুজ শক্তি: পৃথিবীর শক্তি সম্পদ কিভাবে পূরণ হয় তা একটি গুরুত্বপূর্ণ নির্ণয় করা যাবে 2017 সালের শেষ নাগাদ। আগামী বছরে তেলের দাম যথেষ্ট পরিমাণ বাড়বে, ফলো তো এগুলো আপনার পকেটে ব্যাপকভাবে প্রভাব ফেলবে একই সঙ্গে২০২০ সালের শেষ দিকে কম দামে বিদ্যুৎ বাস্তবায়িত হবে।

৬.২০৩৫ বায়োনিক চোখ: মনে করা হচ্ছে যে২০২০ সালের মধ্যে একটি শক্তিশালী প্রাকৃতিক দর্শনের মাধ্যমে একজন অন্ধ মানুষকে সম্পূর্ণ সুস্থ করা সম্ভব হবে। এবং একই সাথে ২০৩৫ সালের মধ্যে আমরা বায়োনিক চোখ ব্যবহার করতে পারব।

৭.২০৩৬ অমরত্ব- অমরত্ব আমাদের কাছে স্বপ্নের মতো হলেও চিকিৎসাবিজ্ঞান জানান যে আমরা অমরত্ব এর খুব কাছাকাছি এসে পৌঁছেছি। 2019 সালের মধ্যে এটি হবার ৫০% সুযোগ রয়েছে এমনটাই জানান জেরোন্টোলজিস্ট রা।

৮.২০৪৫ প্রযুক্তিগত একতা: সহজ ভাবে বলা যায় যখন কম্পিউটারের বুদ্ধিমত্তা মানব বুদ্ধি কে অতিক্রম করবে এবং একটি শক্তিশালী সুপারিনটেশন তৈরি হবে যেটা হবে মানুষের থেকে অনেক শক্তিশালী। আশা করা যায় এই প্রযুক্তি ২০৪৫ এর মধ্যেই আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

৯.২০৫০-২০৬০ ভূমণ্ডলীয় বিপর্যয় : মনে হচ্ছে২০৫০-২০৬০ আমাদের জন্য একটা কঠিন সময়। এই সময়ে জনসংখ্যা ৯ বিলিয়ন অতিক্রম করবে এবং একই সাথে সম্পদের ক্রমবর্ধমান ঘাটতি ঘটবে এছাড়াও মহাসাগর এক জলীয় সংকটে পতিত হবে।

ADs by sundarban PVC sundarban PVC Ads

ADs by Korotoa PVC Korotoa PVC Ads
ADs by Bank Asia Bank 

Asia Ads

নিচে মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *