ঢাকা ১০:৩১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
আগামীতে আইসিটি সেক্টরে ১০ লক্ষ কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা হবে ………….ঠাকুরগাঁওয়ে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পীরগঞ্জে বিদায় সংবর্ধনা ও দায়িত্বভার গ্রহণ শেখ সমশের আলী রোগীদের প্রতি অবহেলা কোনভাবেই সহ্য করা হবেনা- পীরগঞ্জে ২০ শয্যাবিশিষ্ট ডায়াবেটিস এন্ড জেনারেল হাসপাতালের উদ্বোধনী বক্তৃতায় স্বাস্থ্য মন্ত্রী পীরগঞ্জে ২শ’ পিস টার্পেন্টাডল সহ মাদক ব্যবসায়ী আটক পীরগঞ্জে ফেন্সিডিল ও ইনজেকশন উদ্ধার : গ্রেফতার— ২ পীরগঞ্জে টার্পেন্টাডল ট্যাবলেট সহ ১ মাদক ব্যবসায়ী আটক ডাচ বাংলা ব্যাংকের প্রতিনিধিকে মারপিট করে ৯ লক্ষ টাকা ছিনতাই বাংলাদেশে বিনিয়োগের এখন উপযুক্ত সময়: চীনা ব্যবসায়ীদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী ঠাকুরগাঁওয়ে পুকুরের পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু খালেদা জিয়ার জীবন হুমকির মুখে: মির্জা ফখরুল

পীরগঞ্জে সাংবাদিককে হত্যার চেষ্টা,থানায় মামলা

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:: সিএনএন বাংলা টিভি’র স্টাফ রিপোর্টার ও দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকার পীরগঞ্জ প্রতিনিধি মোঃ আব্দুল আলিম কে এলাকার চিহিৃত সন্ত্রাশী মোঃ হামিদুল ইসলাম ও তার সঙ্গীয় ৫/৬ জন ব্যক্তি হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিট ও গুরুতর জখম করে অজ্ঞানাবস্থায় রাস্তায় ফেলে রাখার ঘটনায় গত ১৮ এপ্রিল পীরগঞ্জ থানায় মামলা হয়েছে। জানা যায়, পশ্চিম মল্লিকপুর গ্রামের মৃত দারুল ইসলাম দৌলত এর সন্ত্রাসী পুত্র মোঃ হামিদুল ইসলাম, সাংবাদিক আব্দুল আলিম এর বড় ভাই ফরিদুল ইসলাম এর বলাইহাট নামক স্থানে মুদিখানা দোকান থেকে বিভিন্ন সময়ে খাদ্য পণ্য ক্রয় করে ২৭,১৭৬/- টাকা বকেয়া করেন। গত ১৫এপ্রিল বিকেলে সাংবাদিক আব্দুল আলিম ও তার বাবা আব্দুল মোতালেব বকেয়া টাকা চাওয়ার জন্যে হামিদুল ইসলামের বাড়িতে যায়। ওই সময় হামিদুল ইসলাম আব্দুল আলিম ও তার পিতা কে দেখে তাদের প্রতি চড়াও হয়। আব্দুল আলিম প্রতিবাদ করিলে, হামিদুল ইসলাম অতর্কিত আব্দুল আলিমের বুকে লার্থি মেরে আহত করেন। এছাড়া ঐ সময় হামিদুল ইসলাম ইত্তেজিত হয়ে আব্দুল আলিমকে বলেন যে, আমি কোন টাকা পয়সা দিব না। বাড়াবাড়ি করলে, তোমার কাছ থেকে আরো আরো ১০ গুন টাকা আদায় করব বলে হুমকি দেয়। এরপর নিজ বাড়ীতে ফিরে রাত ৭টায় আব্দুল আলিম সাংবাদিকতার কাজে পীরগঞ্জে আসার পথে ৭.১৫ ঘটিকায় নসিবগঞ্জ রোড পিএস উচ্চ বিদ্যালয়ের দক্ষিণে পাকা সড়ক হইতে পূর্বে নির্জন কাচা রাস্তার উপর পৌছা মাত্রই পূর্বের আক্রোশ বাস্তবায়ন করার উদ্দেশ্যে হামিদুল ইসলাম ও তার মনোনীত ৫/৬ জন সন্ত্রাসী আব্দুল আলিমের পথ গতিরোধ করে। মারাত্বক অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হইয়া হাতে লোহার রড ও ধারালো রাম দা লইয়া তাকে আটক করিয়া হামিদুল ইসলাম নিজে ও তার হুকুমে অজ্ঞাত নামা সকল আসামীরা তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে লোহার রড দ্বারা মাথার হেলমেটের উপর ও শরীরের দুই কাধে ও শরীরের পিছনে বিভিন্ন জায়গায় মারপিট করিয়া গুরুতর আহত করিয়া প্রানে মারিয়া ফেলার চেষ্টা করে। ঐ সময় পূর্বের পাওনাকৃত টাকা বে-দখল দেওয়া ও আব্দুল আলিমের কাছ থেকে ভবিষ্যতে আরো অনেক টাকা আদায় করার জন্যে ধারালো অস্ত্রের মুখে জিম্মি ও মৃত্যুর ভয় দেখিয়া ১০০/- টাকা মূল্যের ৩ খানা নন জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে হামিদুল ইসলাম জোর পূবর্ক আব্দুল আলিমের কাছে স্বাক্ষর নেয়। আব্দুল আলিমের স্বাক্ষরিত ফাঁকা স্ট্যাম্পগুলি ভবিষ্যতে হামিদুল ইসলাম মূল্যবান সম্পদে পরিণত করতে পারে বলে আব্দুল আলিমের পরিবার ধারনা করছেন। ঘটনার পর আব্দুল আলিমকে মুমুর্ষ অবস্থায় পীরগঞ্জ সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসায় কিছুটা সুস্থ হয়ে আব্দুল আলিম বাদী হয়ে হামিদুল ইসলাম সহ অজ্ঞাত নামা ৫/৬ জনের বিরুদ্ধে গত ১৮ এপ্রিল ২০২১ ইং তারিখে পীরগঞ্জ থানায় ১৮৬০ সনের পেনাল কোড আইনের ১৪৩/৩৪১/৩২৩/৩২৫/৩০৭/৩৮৬/৫০৬/১১৪ ধারায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- ১২/৬৪। থানার ওসি প্রদীপ কুমার রায় এ ব্যাপারে বলেন, এ বিষয়ে জরুরীভাবে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সাব ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) মোঃ আবু তালেব আকন্দ জানান আসামী গ্রেফতারের তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে এবং মামলাটি নিরপেক্ষ তদন্ত চলছে।

Tag :

ভিডিও

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

Azam Rehman

জনপ্রিয় সংবাদ

আগামীতে আইসিটি সেক্টরে ১০ লক্ষ কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা হবে ………….ঠাকুরগাঁওয়ে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

পীরগঞ্জে সাংবাদিককে হত্যার চেষ্টা,থানায় মামলা

আপডেট টাইম ০৪:৩৬:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:: সিএনএন বাংলা টিভি’র স্টাফ রিপোর্টার ও দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকার পীরগঞ্জ প্রতিনিধি মোঃ আব্দুল আলিম কে এলাকার চিহিৃত সন্ত্রাশী মোঃ হামিদুল ইসলাম ও তার সঙ্গীয় ৫/৬ জন ব্যক্তি হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিট ও গুরুতর জখম করে অজ্ঞানাবস্থায় রাস্তায় ফেলে রাখার ঘটনায় গত ১৮ এপ্রিল পীরগঞ্জ থানায় মামলা হয়েছে। জানা যায়, পশ্চিম মল্লিকপুর গ্রামের মৃত দারুল ইসলাম দৌলত এর সন্ত্রাসী পুত্র মোঃ হামিদুল ইসলাম, সাংবাদিক আব্দুল আলিম এর বড় ভাই ফরিদুল ইসলাম এর বলাইহাট নামক স্থানে মুদিখানা দোকান থেকে বিভিন্ন সময়ে খাদ্য পণ্য ক্রয় করে ২৭,১৭৬/- টাকা বকেয়া করেন। গত ১৫এপ্রিল বিকেলে সাংবাদিক আব্দুল আলিম ও তার বাবা আব্দুল মোতালেব বকেয়া টাকা চাওয়ার জন্যে হামিদুল ইসলামের বাড়িতে যায়। ওই সময় হামিদুল ইসলাম আব্দুল আলিম ও তার পিতা কে দেখে তাদের প্রতি চড়াও হয়। আব্দুল আলিম প্রতিবাদ করিলে, হামিদুল ইসলাম অতর্কিত আব্দুল আলিমের বুকে লার্থি মেরে আহত করেন। এছাড়া ঐ সময় হামিদুল ইসলাম ইত্তেজিত হয়ে আব্দুল আলিমকে বলেন যে, আমি কোন টাকা পয়সা দিব না। বাড়াবাড়ি করলে, তোমার কাছ থেকে আরো আরো ১০ গুন টাকা আদায় করব বলে হুমকি দেয়। এরপর নিজ বাড়ীতে ফিরে রাত ৭টায় আব্দুল আলিম সাংবাদিকতার কাজে পীরগঞ্জে আসার পথে ৭.১৫ ঘটিকায় নসিবগঞ্জ রোড পিএস উচ্চ বিদ্যালয়ের দক্ষিণে পাকা সড়ক হইতে পূর্বে নির্জন কাচা রাস্তার উপর পৌছা মাত্রই পূর্বের আক্রোশ বাস্তবায়ন করার উদ্দেশ্যে হামিদুল ইসলাম ও তার মনোনীত ৫/৬ জন সন্ত্রাসী আব্দুল আলিমের পথ গতিরোধ করে। মারাত্বক অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হইয়া হাতে লোহার রড ও ধারালো রাম দা লইয়া তাকে আটক করিয়া হামিদুল ইসলাম নিজে ও তার হুকুমে অজ্ঞাত নামা সকল আসামীরা তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে লোহার রড দ্বারা মাথার হেলমেটের উপর ও শরীরের দুই কাধে ও শরীরের পিছনে বিভিন্ন জায়গায় মারপিট করিয়া গুরুতর আহত করিয়া প্রানে মারিয়া ফেলার চেষ্টা করে। ঐ সময় পূর্বের পাওনাকৃত টাকা বে-দখল দেওয়া ও আব্দুল আলিমের কাছ থেকে ভবিষ্যতে আরো অনেক টাকা আদায় করার জন্যে ধারালো অস্ত্রের মুখে জিম্মি ও মৃত্যুর ভয় দেখিয়া ১০০/- টাকা মূল্যের ৩ খানা নন জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে হামিদুল ইসলাম জোর পূবর্ক আব্দুল আলিমের কাছে স্বাক্ষর নেয়। আব্দুল আলিমের স্বাক্ষরিত ফাঁকা স্ট্যাম্পগুলি ভবিষ্যতে হামিদুল ইসলাম মূল্যবান সম্পদে পরিণত করতে পারে বলে আব্দুল আলিমের পরিবার ধারনা করছেন। ঘটনার পর আব্দুল আলিমকে মুমুর্ষ অবস্থায় পীরগঞ্জ সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসায় কিছুটা সুস্থ হয়ে আব্দুল আলিম বাদী হয়ে হামিদুল ইসলাম সহ অজ্ঞাত নামা ৫/৬ জনের বিরুদ্ধে গত ১৮ এপ্রিল ২০২১ ইং তারিখে পীরগঞ্জ থানায় ১৮৬০ সনের পেনাল কোড আইনের ১৪৩/৩৪১/৩২৩/৩২৫/৩০৭/৩৮৬/৫০৬/১১৪ ধারায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- ১২/৬৪। থানার ওসি প্রদীপ কুমার রায় এ ব্যাপারে বলেন, এ বিষয়ে জরুরীভাবে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সাব ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) মোঃ আবু তালেব আকন্দ জানান আসামী গ্রেফতারের তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে এবং মামলাটি নিরপেক্ষ তদন্ত চলছে।