ঢাকা ০৭:৪১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ মে ২০২৪, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভুয়া ডিবি পুলিশ আটক

রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও): জেলার রাণীশংকৈল উপজেলায় ডিবি পুলিশের পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে দুই ব্যাক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। রানীশংকৈল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গুলফামুল ইসলাম মন্ডল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।২৪ মে দুপুরে উপজেলার হোসেনগাঁও ইউনিয়নের সুন্দরপুর এলাকা থেকে তাদের  আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ী এলাকার ইউসুফ খলিফার ছেলে মুন্না হাসান (৩৬) ও একই এলাকার আব্দুল মান্নানের ছেলে নুর মোহাম্মদ (৩৭)।

স্থানীয়রা জানায়, মুন্না হাসান ও নুর মোহাম্মদ নিজেদের গোয়েন্দা পুলিশের পরিচয় দিয়ে  উপজেলার হোসেনগাঁও ইউনিয়নের সুন্দরপুর এলাকায় আদিবাসী আমিন মার্ডিকে মাদক বিক্রেতা বলে তাদের ভয় দেখায়। পরে ওই ব্যক্তির কাছ থেকে টাকা নেন তারা। এক সময় তাদের আচরণে এলাকাবাসীর সন্দেহ হলে তারা থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে খবর পেয়ে এসে ভুয়া ডিবি পুলিশের পরিচয় দানকারী ওই দুই ব্যাক্তিকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

আদিবাসী আমিন মার্ডি জানান, ডিবি পরিচয়ে তারা আমার বাড়িতে তল্লাশি  চালায়। এক সময় পরিবারের লোকজনকে অবৈধ বাংলা মদের মামলা দিয়ে ফাঁসিয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ১৮ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন। পরে তাদের কথাবার্তা সন্দেহ মনে হলে পুলিশকে খবর দেয় স্থানীয়রা।

রানীশংকৈল থানার অফিসার ইনচার্জ  গুলফামুল ইসলাম মন্ডল বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা ভুয়া ডিবি পুলিশ পরিচয় দেয়ার কথা স্বীকার করে। এ ঘটনায় তাদের নিয়মিত মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Tag :

ভিডিও

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

Azam Rehman

ভুয়া ডিবি পুলিশ আটক

আপডেট টাইম ০৩:১৫:০৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ মে ২০২৩

রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও): জেলার রাণীশংকৈল উপজেলায় ডিবি পুলিশের পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে দুই ব্যাক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। রানীশংকৈল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গুলফামুল ইসলাম মন্ডল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।২৪ মে দুপুরে উপজেলার হোসেনগাঁও ইউনিয়নের সুন্দরপুর এলাকা থেকে তাদের  আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ী এলাকার ইউসুফ খলিফার ছেলে মুন্না হাসান (৩৬) ও একই এলাকার আব্দুল মান্নানের ছেলে নুর মোহাম্মদ (৩৭)।

স্থানীয়রা জানায়, মুন্না হাসান ও নুর মোহাম্মদ নিজেদের গোয়েন্দা পুলিশের পরিচয় দিয়ে  উপজেলার হোসেনগাঁও ইউনিয়নের সুন্দরপুর এলাকায় আদিবাসী আমিন মার্ডিকে মাদক বিক্রেতা বলে তাদের ভয় দেখায়। পরে ওই ব্যক্তির কাছ থেকে টাকা নেন তারা। এক সময় তাদের আচরণে এলাকাবাসীর সন্দেহ হলে তারা থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে খবর পেয়ে এসে ভুয়া ডিবি পুলিশের পরিচয় দানকারী ওই দুই ব্যাক্তিকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

আদিবাসী আমিন মার্ডি জানান, ডিবি পরিচয়ে তারা আমার বাড়িতে তল্লাশি  চালায়। এক সময় পরিবারের লোকজনকে অবৈধ বাংলা মদের মামলা দিয়ে ফাঁসিয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ১৮ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন। পরে তাদের কথাবার্তা সন্দেহ মনে হলে পুলিশকে খবর দেয় স্থানীয়রা।

রানীশংকৈল থানার অফিসার ইনচার্জ  গুলফামুল ইসলাম মন্ডল বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা ভুয়া ডিবি পুলিশ পরিচয় দেয়ার কথা স্বীকার করে। এ ঘটনায় তাদের নিয়মিত মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।