ঢাকা ০৩:৫৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১০ জুন ২০২৪, ২৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
পীরগঞ্জে স্কুল ছাত্রীকে উত্যক্ত করার দায়ে ইভটিজারের ১৫ দিনের জেল পীরগঞ্জে ভূমিসেবা সপ্তাহ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ও আলোচনা সভা রক্ষক যখন ভক্ষকের ভূমিকায় ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে সম্পর্কের পর অস্বীকার, এলাকায় তোলপাড় ঠাকুরগাঁও জেলার শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত হয়েছে পীরগঞ্জ থানা পীরগঞ্জে ব্র্র্যাক ইউপিজি’র পলিথিন বর্জনে র‌্যালী ও আলোচনা সভা পীরগঞ্জে নারকোটিকস’র অভিযানে ৮শ পিস নেশ ট্যাবলেট সহ ২ মাদক কারবারী গ্রেপ্তার পীরগঞ্জে স্কুল ছাত্রী অপহরন ও ধর্ষনের অভিযোগে ধর্ষক গ্রেপ্তার ঠাকুরগাঁও পৌরসভায় নাগরিক সেবা বাড়েনি গৃহবধুকে ধর্ষনের পর হত্যা, ২ ঘাতক গ্রেপ্তার ঠাকুরগাঁওয়ে দ্বিতীয় ধাপে দু’টি উপজেলায় নতুন প্রার্থী বিজয়ী

৮ম শ্রেণীর ছাত্রীকে বাল্য বিয়ের হাত থেকে বাচাল ইউএনও রায়হান শাহ

আজম রেহমান, সারাদিন ডেস্ক::৮ম শ্রেনীর এক নাবালিকার বিবাহ অনুষ্ঠানে গিয়ে বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা করলেন পীরগঞ্জের(ঠাকুরগাঁও) উপজেলা নির্বাহী অফিসার এডাব্লিউএম রায়হান শাহ। ১৩ সেপ্টেম্বর রাত ১০টায় উপজেলার পৌরশহরের মুন্সিপাড়ায় বিয়ে বাড়ীতে উপস্থিত হয়ে এই বাল্য বিয়ে ভন্ডুল করে দেন তিনি।

প্রাপ্ত সূত্রে প্রকাশ শহরের প্রাণকেন্দ্র মুন্সিপাড়ায় জনৈক জামাল উদ্দিন তার ১৩ বছর বয়সি কন্যা জেমি আকতারের বিয়ে দেয়ার জন্য আনুষ্ঠানিকতার আয়োজন করেন। বিষয়টি কানে যায় স্থানীয় মানবাধিকার কর্মী নাহিদ পারভিন রিপার। তাৎক্ষনিক তিনি হাজির হন বিয়ের অনুষ্ঠানে এবং বাল্য বিয়ে বন্ধের অনুরোধ করেন এবং উপজেলা নিবার্হী অফিসারকে বিষয়টি অবহিত করেন। খবর পেয়ে মুহুত্বের মধ্যেই ইউএনও রায়হান শাহ ঘটনাস্থলে পৌছে বিয়ে বন্ধ করান এবং মেয়ের অভিভাবক ও স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিদের কাছে মুচলেকা গ্রহন করেন। প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে বর ও বরপক্ষের লোকজন বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে নিমিষেই সটকে পড়েন। জেমি পীরগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী। এই বিয়েতে জেমিরও সম্মতি ছিলনা বলে জেমি জানিয়েছে। সে উচ্চ শিক্ষা গ্রহনে আগ্রহী। বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ায় অত্যন্ত আনন্দিত জেমি।

Tag :

ভিডিও

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

Azam Rehman

পীরগঞ্জে স্কুল ছাত্রীকে উত্যক্ত করার দায়ে ইভটিজারের ১৫ দিনের জেল

৮ম শ্রেণীর ছাত্রীকে বাল্য বিয়ের হাত থেকে বাচাল ইউএনও রায়হান শাহ

আপডেট টাইম ০৪:১১:১০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

আজম রেহমান, সারাদিন ডেস্ক::৮ম শ্রেনীর এক নাবালিকার বিবাহ অনুষ্ঠানে গিয়ে বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা করলেন পীরগঞ্জের(ঠাকুরগাঁও) উপজেলা নির্বাহী অফিসার এডাব্লিউএম রায়হান শাহ। ১৩ সেপ্টেম্বর রাত ১০টায় উপজেলার পৌরশহরের মুন্সিপাড়ায় বিয়ে বাড়ীতে উপস্থিত হয়ে এই বাল্য বিয়ে ভন্ডুল করে দেন তিনি।

প্রাপ্ত সূত্রে প্রকাশ শহরের প্রাণকেন্দ্র মুন্সিপাড়ায় জনৈক জামাল উদ্দিন তার ১৩ বছর বয়সি কন্যা জেমি আকতারের বিয়ে দেয়ার জন্য আনুষ্ঠানিকতার আয়োজন করেন। বিষয়টি কানে যায় স্থানীয় মানবাধিকার কর্মী নাহিদ পারভিন রিপার। তাৎক্ষনিক তিনি হাজির হন বিয়ের অনুষ্ঠানে এবং বাল্য বিয়ে বন্ধের অনুরোধ করেন এবং উপজেলা নিবার্হী অফিসারকে বিষয়টি অবহিত করেন। খবর পেয়ে মুহুত্বের মধ্যেই ইউএনও রায়হান শাহ ঘটনাস্থলে পৌছে বিয়ে বন্ধ করান এবং মেয়ের অভিভাবক ও স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিদের কাছে মুচলেকা গ্রহন করেন। প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে বর ও বরপক্ষের লোকজন বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে নিমিষেই সটকে পড়েন। জেমি পীরগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী। এই বিয়েতে জেমিরও সম্মতি ছিলনা বলে জেমি জানিয়েছে। সে উচ্চ শিক্ষা গ্রহনে আগ্রহী। বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ায় অত্যন্ত আনন্দিত জেমি।