ঢাকা ০৩:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
পীরগঞ্জে স্কুল ছাত্রীকে উত্যক্ত করার দায়ে ইভটিজারের ১৫ দিনের জেল পীরগঞ্জে ভূমিসেবা সপ্তাহ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ও আলোচনা সভা রক্ষক যখন ভক্ষকের ভূমিকায় ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে সম্পর্কের পর অস্বীকার, এলাকায় তোলপাড় ঠাকুরগাঁও জেলার শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত হয়েছে পীরগঞ্জ থানা পীরগঞ্জে ব্র্র্যাক ইউপিজি’র পলিথিন বর্জনে র‌্যালী ও আলোচনা সভা পীরগঞ্জে নারকোটিকস’র অভিযানে ৮শ পিস নেশ ট্যাবলেট সহ ২ মাদক কারবারী গ্রেপ্তার পীরগঞ্জে স্কুল ছাত্রী অপহরন ও ধর্ষনের অভিযোগে ধর্ষক গ্রেপ্তার ঠাকুরগাঁও পৌরসভায় নাগরিক সেবা বাড়েনি গৃহবধুকে ধর্ষনের পর হত্যা, ২ ঘাতক গ্রেপ্তার ঠাকুরগাঁওয়ে দ্বিতীয় ধাপে দু’টি উপজেলায় নতুন প্রার্থী বিজয়ী

পোলিং কর্মকর্তার সঙ্গে বিতণ্ডা, আছড়ে ইভিএম ভাঙলেন প্রার্থী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: বুথে ঢুকেই মেজাজ হারালেন এক প্রার্থী। পোলিং কর্মকর্তার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করে একটি ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) হাতে তুলে নিয়ে সেটি মাটিতে আছড়ে ভাঙেন তিনি।

বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটে অন্ধ্রপ্রদেশের অনন্তপুর জেলার গুন্টাকল বিধানসভা কেন্দ্রের একটি বুথে। ঘটনার পরপরই জনসেনা পার্টির প্রার্থী মধুসূদন গুপ্তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ভোটকেন্দ্রের পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকালেই জনসেনা পার্টির ওই প্রার্থী ভোট দিতে চলে এসেছিলেন গুন্টাকল বিধানসভা কেন্দ্রে গুট্টি এলাকার একটি বুথে। সেখানে ঢুকেই তিনি পোলিং কর্মকর্তা এবং অন্য দলের নির্বাচনী এজেন্টদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করতে শুরু করেন।

তিনি অভিযোগ করেন, পোলিং কর্মকর্তারা ভোটারদের বিভ্রান্ত করছেন। বিভিন্ন অভিযোগ তুলে হইচই বাধানোর পর উত্তেজিত হয়ে পড়েন জনসেনা পার্টির ওই প্রার্থী। পোলিং কর্মকর্তাদের বাধা না মেনে সামনে এগিয়ে গিয়ে হাতে তুলে নেন একটি ইভিএম। তারপর সেটি আছড়ে ফেলেন মাটিতে।

বৃহস্পতিবার অন্ধ্রপ্রদেশে বিধানসভার ১৭৫টি আসন ও লোকসভার ২৫টি আসনে ভোট হচ্ছে। বিধানসভার আসনগুলোতে মোট প্রার্থীর সংখ্যা ২ হাজার ১১৮। প্রথম দফায় রাজ্যের যে ২৫টি লোকসভা আসনে ভোট হচ্ছে তাতে প্রার্থীর সংখ্যা ৩১৯। অন্ধ্রে মোট ভোটার সংখ্যা ৪ কোটি। এদের মধ্যে ১৮ থেকে ১৯ বছর বয়সী ভোটার রয়েছেন প্রায় ১০ লাখ। তারা এবার প্রথমবারের মতো ভোট দিচ্ছেন।

রাজ্যে অবশ্য আরও কয়েকটি জায়গায় ইভিএম নিয়ে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, ইভিএমগুলো ঠিকভাবে কাজ করছে না। রাজ্যের প্রধান নির্বাচন কর্মকর্তা গোপাল কৃষ্ণ দ্বিবেদী একটি বুথে ভোট দিতে এসে জানান, অন্তত ৫০টি বুথ থেকে তিনি ইভিএম নিয়ে অভিযোগ পেয়েছেন।

সকালেই অমরাবতীর উন্ডাবল্লী গ্রামের একটি বুথে গিয়ে ভোট দিয়েছেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী এন চন্দ্রবাবু নায়ড়ু ও তার পরিবারের সদস্যরা। উন্ডাবল্লী যে বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে পড়ে সেই মঙ্গলাগিরিতে এবার তেলুগু দেশম পার্টির (টিডিপি) প্রার্থী হয়েছেন চন্দ্রবাবুর ছেলে নারা লোকেশ। কাডাপা জেলার পুলিভেনদুলায় একটি বুথে সকালেই ভোট দেন ওয়াইএসআর কংগ্রেসের সভাপতি ওয়াই এস জগন্মোহন রেড্ডি।

Tag :

ভিডিও

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

Azam Rehman

পীরগঞ্জে স্কুল ছাত্রীকে উত্যক্ত করার দায়ে ইভটিজারের ১৫ দিনের জেল

পোলিং কর্মকর্তার সঙ্গে বিতণ্ডা, আছড়ে ইভিএম ভাঙলেন প্রার্থী

আপডেট টাইম ০৬:৫৮:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ এপ্রিল ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: বুথে ঢুকেই মেজাজ হারালেন এক প্রার্থী। পোলিং কর্মকর্তার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করে একটি ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) হাতে তুলে নিয়ে সেটি মাটিতে আছড়ে ভাঙেন তিনি।

বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটে অন্ধ্রপ্রদেশের অনন্তপুর জেলার গুন্টাকল বিধানসভা কেন্দ্রের একটি বুথে। ঘটনার পরপরই জনসেনা পার্টির প্রার্থী মধুসূদন গুপ্তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ভোটকেন্দ্রের পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকালেই জনসেনা পার্টির ওই প্রার্থী ভোট দিতে চলে এসেছিলেন গুন্টাকল বিধানসভা কেন্দ্রে গুট্টি এলাকার একটি বুথে। সেখানে ঢুকেই তিনি পোলিং কর্মকর্তা এবং অন্য দলের নির্বাচনী এজেন্টদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করতে শুরু করেন।

তিনি অভিযোগ করেন, পোলিং কর্মকর্তারা ভোটারদের বিভ্রান্ত করছেন। বিভিন্ন অভিযোগ তুলে হইচই বাধানোর পর উত্তেজিত হয়ে পড়েন জনসেনা পার্টির ওই প্রার্থী। পোলিং কর্মকর্তাদের বাধা না মেনে সামনে এগিয়ে গিয়ে হাতে তুলে নেন একটি ইভিএম। তারপর সেটি আছড়ে ফেলেন মাটিতে।

বৃহস্পতিবার অন্ধ্রপ্রদেশে বিধানসভার ১৭৫টি আসন ও লোকসভার ২৫টি আসনে ভোট হচ্ছে। বিধানসভার আসনগুলোতে মোট প্রার্থীর সংখ্যা ২ হাজার ১১৮। প্রথম দফায় রাজ্যের যে ২৫টি লোকসভা আসনে ভোট হচ্ছে তাতে প্রার্থীর সংখ্যা ৩১৯। অন্ধ্রে মোট ভোটার সংখ্যা ৪ কোটি। এদের মধ্যে ১৮ থেকে ১৯ বছর বয়সী ভোটার রয়েছেন প্রায় ১০ লাখ। তারা এবার প্রথমবারের মতো ভোট দিচ্ছেন।

রাজ্যে অবশ্য আরও কয়েকটি জায়গায় ইভিএম নিয়ে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, ইভিএমগুলো ঠিকভাবে কাজ করছে না। রাজ্যের প্রধান নির্বাচন কর্মকর্তা গোপাল কৃষ্ণ দ্বিবেদী একটি বুথে ভোট দিতে এসে জানান, অন্তত ৫০টি বুথ থেকে তিনি ইভিএম নিয়ে অভিযোগ পেয়েছেন।

সকালেই অমরাবতীর উন্ডাবল্লী গ্রামের একটি বুথে গিয়ে ভোট দিয়েছেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী এন চন্দ্রবাবু নায়ড়ু ও তার পরিবারের সদস্যরা। উন্ডাবল্লী যে বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে পড়ে সেই মঙ্গলাগিরিতে এবার তেলুগু দেশম পার্টির (টিডিপি) প্রার্থী হয়েছেন চন্দ্রবাবুর ছেলে নারা লোকেশ। কাডাপা জেলার পুলিভেনদুলায় একটি বুথে সকালেই ভোট দেন ওয়াইএসআর কংগ্রেসের সভাপতি ওয়াই এস জগন্মোহন রেড্ডি।