ঢাকা ০৭:১৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
পীরগঞ্জে মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় কিশোরের মৃত্যু জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি সহ ৫ নেতার পীরগঞ্জে সংবর্ধনা ১৫০ পিস টার্পেন্টাডল সহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার প্রতিবন্ধী ভাতাভোগীদের অর্থ আত্মসাৎকারী চক্রের গ্রেফতার বিষয়ে ঠাকুরগাঁওয়ে সংবাদ সম্মেলন ঠাকুরগাঁওয়ে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় কমিউনিটি পুলিশিং সভা পীরগঞ্জে পেট্রোল পাম্পে ‘নো হেলমেট নো ফুয়েল’ ক্যাম্পিং পীরগঞ্জে স্কুল ছাত্রীকে উত্যক্ত করার দায়ে ইভটিজারের ১৫ দিনের জেল পীরগঞ্জে ভূমিসেবা সপ্তাহ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ও আলোচনা সভা রক্ষক যখন ভক্ষকের ভূমিকায় ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে সম্পর্কের পর অস্বীকার, এলাকায় তোলপাড় ঠাকুরগাঁও জেলার শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত হয়েছে পীরগঞ্জ থানা

ওজন কমাতে গিয়ে যে সব ভুল ধারণা

সারাদিন ডেস্ক:: ওজন কমাতে গিয়ে কেউ কেউ এমন সব কাজ করেন, যা ওজন তো কমায় না বরং তৈরি করে নানা শারীরিক জটিলতা। ওজন কমাতে জানতে হবে, কোনটা খাবেন, কতটা খাবেন। একবারে খাওয়া বাদ দিয়ে দেওয়া কোনোভাবেই শরীরের জন্য ভালো নয়।

শর্করা বাদ
ওজন কমাতে শর্করা খাওয়া বাদ দিয়ে দিন। ওজন কমাতে গেলে বা সুস্বাস্থ্য পেতে হলে যাওয়া যাবে না কোনো ক্রাশ ডায়েটে যেখানে শর্করা ছাড়া খাবার খেতে বলা হয়। স্বল্পমেয়াদি এসব পরিকল্পনায় তৈরি হবে দীর্ঘমেয়াদি জটিলতা। ওজন কমাতে শর্করা বাদ দিয়ে পরে শর্করা খাওয়ার পরিমাণ বাড়িয়ে দিলে তা তৈরি করবে নানা জটিলতা। ফল, সবজি, বাদাম, গম এসব খাবারে যেসব শর্করা আছে, তা আসলেই শরীরের জন্য উপকারী। কমিয়ে দিতে হবে ফাস্ট ফুড, ভাত, পাস্তা—এ ধরনের খাবার খাওয়া।

চর্বি মানেই খারাপ
শরীর সুস্থ থাকার জন্য চর্বিজাতীয় খাবার খাওয়া খুব জরুরি। জলপাইয়ের তেল, অ্যাভোক্যাডো, বাদাম, নারকেলের মাখন, পনির এসব খাবার শরীরকে কাজ করার শক্তি দেবে। চর্বিজাতীয় খাবার বাদ দিয়ে দিলে শরীর ভাঙতে শুরু করবে, চামড়া কুঁচকে যাবে।

সামান্য চিনিই তো
ওজন কমাতে চিনির ব্যবহার কমিয়ে দেওয়া অনেকেই মেনে নিতে পারেন না। অল্প একটু চিনি, সামান্য একটু পানীয় বা কালো কফি খেতে খারাপ লাগে এসব বলে একটু একটু করে চিনি শরীরে জমা হচ্ছে অনেকটা হয়ে। এতে একদিকে যেমন ওজন বাড়ছে তেমন ক্ষতি হচ্ছে স্বাস্থ্যেরও।

ব্যায়াম করলে একটু খাওয়া যায়
স্বাভাবিকের তুলনায় সামান্য একটু বেশি ব্যায়াম করে তার দোহাই দিয়ে অনেকটা খেয়ে ফেলার অভ্যাস আছে অনেকেরই। ব্যায়াম করলে খুব ক্ষুধা লাগে, এটিও একটি পুরোনো যুক্তি। সারা দিনের প্রয়োজনীয় ক্যালরির থেকে বেশি খরচ না করতে পারলে ওজন কমবে না। ব্যায়াম করেছি বলে যা খুশি খেয়ে নেওয়ার সুযোগ থাকে না। সে ক্ষেত্রে ভিটামিন সি-যুক্ত ফল খাওয়া যেতে পারে। তাতে ওজন কমবে আরও সহজে।

পপকর্ন বা চিপস
অনেকেই মনে করেন পপকর্ন বা চিপস ইচ্ছেমতো খাওয়া যায়। এতে ওজন বাড়বে না কারণ এতে পেট তো আর ভরছে না। অথচ পপকর্নে থাকা অতিরিক্ত লবণ আর ভাজার সময় ব্যবহার করা ঘি, মাখন বা তেলে ওজন বাড়বে অনেকটাই।

কফির আগে ভাবনা
কফি উচ্চ ক্যালরি ও চিনিতে পরিপূর্ণ। সে ক্ষেত্রে পরেরবার কফি পান করতে চাইলে বাদাম দুধ এবং দারুচিনি দিয়ে পান করা যেতে পারে। ব্ল্যাক কফি খেতে সমস্যা হলে খেতে পারেন মধু দিয়ে। দিনে কয়েকবার কফি পানের অভ্যাস এড়িয়ে গেলে আপনি সপ্তাহে ১৬০০ ক্যালরির বেশি ওজন কমাতে পারবেন।

 

Tag :

ভিডিও

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

Azam Rehman

জনপ্রিয় সংবাদ

পীরগঞ্জে মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় কিশোরের মৃত্যু

ওজন কমাতে গিয়ে যে সব ভুল ধারণা

আপডেট টাইম ০৮:১০:৫৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২ মার্চ ২০১৮

সারাদিন ডেস্ক:: ওজন কমাতে গিয়ে কেউ কেউ এমন সব কাজ করেন, যা ওজন তো কমায় না বরং তৈরি করে নানা শারীরিক জটিলতা। ওজন কমাতে জানতে হবে, কোনটা খাবেন, কতটা খাবেন। একবারে খাওয়া বাদ দিয়ে দেওয়া কোনোভাবেই শরীরের জন্য ভালো নয়।

শর্করা বাদ
ওজন কমাতে শর্করা খাওয়া বাদ দিয়ে দিন। ওজন কমাতে গেলে বা সুস্বাস্থ্য পেতে হলে যাওয়া যাবে না কোনো ক্রাশ ডায়েটে যেখানে শর্করা ছাড়া খাবার খেতে বলা হয়। স্বল্পমেয়াদি এসব পরিকল্পনায় তৈরি হবে দীর্ঘমেয়াদি জটিলতা। ওজন কমাতে শর্করা বাদ দিয়ে পরে শর্করা খাওয়ার পরিমাণ বাড়িয়ে দিলে তা তৈরি করবে নানা জটিলতা। ফল, সবজি, বাদাম, গম এসব খাবারে যেসব শর্করা আছে, তা আসলেই শরীরের জন্য উপকারী। কমিয়ে দিতে হবে ফাস্ট ফুড, ভাত, পাস্তা—এ ধরনের খাবার খাওয়া।

চর্বি মানেই খারাপ
শরীর সুস্থ থাকার জন্য চর্বিজাতীয় খাবার খাওয়া খুব জরুরি। জলপাইয়ের তেল, অ্যাভোক্যাডো, বাদাম, নারকেলের মাখন, পনির এসব খাবার শরীরকে কাজ করার শক্তি দেবে। চর্বিজাতীয় খাবার বাদ দিয়ে দিলে শরীর ভাঙতে শুরু করবে, চামড়া কুঁচকে যাবে।

সামান্য চিনিই তো
ওজন কমাতে চিনির ব্যবহার কমিয়ে দেওয়া অনেকেই মেনে নিতে পারেন না। অল্প একটু চিনি, সামান্য একটু পানীয় বা কালো কফি খেতে খারাপ লাগে এসব বলে একটু একটু করে চিনি শরীরে জমা হচ্ছে অনেকটা হয়ে। এতে একদিকে যেমন ওজন বাড়ছে তেমন ক্ষতি হচ্ছে স্বাস্থ্যেরও।

ব্যায়াম করলে একটু খাওয়া যায়
স্বাভাবিকের তুলনায় সামান্য একটু বেশি ব্যায়াম করে তার দোহাই দিয়ে অনেকটা খেয়ে ফেলার অভ্যাস আছে অনেকেরই। ব্যায়াম করলে খুব ক্ষুধা লাগে, এটিও একটি পুরোনো যুক্তি। সারা দিনের প্রয়োজনীয় ক্যালরির থেকে বেশি খরচ না করতে পারলে ওজন কমবে না। ব্যায়াম করেছি বলে যা খুশি খেয়ে নেওয়ার সুযোগ থাকে না। সে ক্ষেত্রে ভিটামিন সি-যুক্ত ফল খাওয়া যেতে পারে। তাতে ওজন কমবে আরও সহজে।

পপকর্ন বা চিপস
অনেকেই মনে করেন পপকর্ন বা চিপস ইচ্ছেমতো খাওয়া যায়। এতে ওজন বাড়বে না কারণ এতে পেট তো আর ভরছে না। অথচ পপকর্নে থাকা অতিরিক্ত লবণ আর ভাজার সময় ব্যবহার করা ঘি, মাখন বা তেলে ওজন বাড়বে অনেকটাই।

কফির আগে ভাবনা
কফি উচ্চ ক্যালরি ও চিনিতে পরিপূর্ণ। সে ক্ষেত্রে পরেরবার কফি পান করতে চাইলে বাদাম দুধ এবং দারুচিনি দিয়ে পান করা যেতে পারে। ব্ল্যাক কফি খেতে সমস্যা হলে খেতে পারেন মধু দিয়ে। দিনে কয়েকবার কফি পানের অভ্যাস এড়িয়ে গেলে আপনি সপ্তাহে ১৬০০ ক্যালরির বেশি ওজন কমাতে পারবেন।