ঢাকা ১০:২৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
আগামীতে আইসিটি সেক্টরে ১০ লক্ষ কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা হবে ………….ঠাকুরগাঁওয়ে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পীরগঞ্জে বিদায় সংবর্ধনা ও দায়িত্বভার গ্রহণ শেখ সমশের আলী রোগীদের প্রতি অবহেলা কোনভাবেই সহ্য করা হবেনা- পীরগঞ্জে ২০ শয্যাবিশিষ্ট ডায়াবেটিস এন্ড জেনারেল হাসপাতালের উদ্বোধনী বক্তৃতায় স্বাস্থ্য মন্ত্রী পীরগঞ্জে ২শ’ পিস টার্পেন্টাডল সহ মাদক ব্যবসায়ী আটক পীরগঞ্জে ফেন্সিডিল ও ইনজেকশন উদ্ধার : গ্রেফতার— ২ পীরগঞ্জে টার্পেন্টাডল ট্যাবলেট সহ ১ মাদক ব্যবসায়ী আটক ডাচ বাংলা ব্যাংকের প্রতিনিধিকে মারপিট করে ৯ লক্ষ টাকা ছিনতাই বাংলাদেশে বিনিয়োগের এখন উপযুক্ত সময়: চীনা ব্যবসায়ীদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী ঠাকুরগাঁওয়ে পুকুরের পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু খালেদা জিয়ার জীবন হুমকির মুখে: মির্জা ফখরুল

রক্ষক যখন ভক্ষকের ভূমিকায় ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে সম্পর্কের পর অস্বীকার, এলাকায় তোলপাড়

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:: জেলার পীরগঞ্জ থনায় কর্মরত ১ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে মহিলার সাথে সম্পর্ক গড়ে তার কাছে আড়াই লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়ে সম্পর্ক অস্বীকারের ঘটনায় এলাকায় তোলপার শুরু হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ রক্ষক হয়ে ভক্ষকের ভুমিকায় অবতীর্ন হয়েছে।
জানা যায়, উপজেলার কেউটগাঁও গ্রামের মৃত মনতাজ আলীর মেয়ে মনোয়ারারা (৩৮) এর সাথে বিবাহের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ৯/১০ মাস আগে সম্পর্ক গড়ে তোলে পীরগঞ্জ থানায় র‌্যাব থেকে বদলী হয়ে আসা পুলিশ কনষ্টেবল আবুল কালাম আজাদ। নানা কলাকৌশলে তিনি সদ্য পিতৃহারা মনোয়ারার অসহায়ত্বের সুযোগ কে কাজে লাগিয়ে তার অতীত জীবনের যাবতীয় ঘটনাবলী জ্ঞাত হয়ে পৈত্রিক সম্পত্তি ও অর্থের লোভে নিজের স্ত্রী ও ২ টি সন্তান থাকা সত্বেও বিয়ের প্রলোভনে দিনরাত মহিলার বাড়ীতে যাতায়াত করতে থাকেন এবং বিভিন্ন অজুহাতে কয়েক দফায় আড়াই লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেন। বিষয়টি এলাকায় মুখরোচক আলোচনার সৃষ্টি করলে মনোযারা আজাদ কে বিয়ের জন্য চাপ দেন কিন্তু আজাদ এই মুহুত্বে তাকে বিয়ে করা সম্ভব নয় জানালে মনোযারার ভাই ভাতিজারা মনোয়ারাকে বাড়ী থেকে বের করে দেন। বিষয়টি জটিলতার দিকে এগুলে মনোয়ারা বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় সাংবাদিকদের স্বরনাপন্ন হন এবং যাবতীয় ডকুমেন্ট উপস্থাপন করেন। এ ব্যাপারে আজাদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও আজাদ সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব না দিয়ে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন বন্ধ রয়েছে বেশ কয়েকদিন ধরে। । এ বিষয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ খায়রুল আনাম কে জিজ্ঞাসা করা হলে বিষয়টি অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক এবং ঘৃনিতকর্ম উল্লেখ করে বলেন, আমি দেখি বিষয়টা স্থানীয়ভাবে কোন সমাধান করা যায় কিনা? ঘটনাটা এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। সচেতনমহল ঘটনাটির নিরপেক্ষ তদন্ত পুর্বক দায়ী পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছে।

Tag :

ভিডিও

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

Azam Rehman

জনপ্রিয় সংবাদ

আগামীতে আইসিটি সেক্টরে ১০ লক্ষ কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা হবে ………….ঠাকুরগাঁওয়ে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

রক্ষক যখন ভক্ষকের ভূমিকায় ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে সম্পর্কের পর অস্বীকার, এলাকায় তোলপাড়

আপডেট টাইম ০৩:৩৫:১৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৭ জুন ২০২৪

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:: জেলার পীরগঞ্জ থনায় কর্মরত ১ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে মহিলার সাথে সম্পর্ক গড়ে তার কাছে আড়াই লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়ে সম্পর্ক অস্বীকারের ঘটনায় এলাকায় তোলপার শুরু হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ রক্ষক হয়ে ভক্ষকের ভুমিকায় অবতীর্ন হয়েছে।
জানা যায়, উপজেলার কেউটগাঁও গ্রামের মৃত মনতাজ আলীর মেয়ে মনোয়ারারা (৩৮) এর সাথে বিবাহের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ৯/১০ মাস আগে সম্পর্ক গড়ে তোলে পীরগঞ্জ থানায় র‌্যাব থেকে বদলী হয়ে আসা পুলিশ কনষ্টেবল আবুল কালাম আজাদ। নানা কলাকৌশলে তিনি সদ্য পিতৃহারা মনোয়ারার অসহায়ত্বের সুযোগ কে কাজে লাগিয়ে তার অতীত জীবনের যাবতীয় ঘটনাবলী জ্ঞাত হয়ে পৈত্রিক সম্পত্তি ও অর্থের লোভে নিজের স্ত্রী ও ২ টি সন্তান থাকা সত্বেও বিয়ের প্রলোভনে দিনরাত মহিলার বাড়ীতে যাতায়াত করতে থাকেন এবং বিভিন্ন অজুহাতে কয়েক দফায় আড়াই লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেন। বিষয়টি এলাকায় মুখরোচক আলোচনার সৃষ্টি করলে মনোযারা আজাদ কে বিয়ের জন্য চাপ দেন কিন্তু আজাদ এই মুহুত্বে তাকে বিয়ে করা সম্ভব নয় জানালে মনোযারার ভাই ভাতিজারা মনোয়ারাকে বাড়ী থেকে বের করে দেন। বিষয়টি জটিলতার দিকে এগুলে মনোয়ারা বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় সাংবাদিকদের স্বরনাপন্ন হন এবং যাবতীয় ডকুমেন্ট উপস্থাপন করেন। এ ব্যাপারে আজাদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও আজাদ সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব না দিয়ে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন বন্ধ রয়েছে বেশ কয়েকদিন ধরে। । এ বিষয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ খায়রুল আনাম কে জিজ্ঞাসা করা হলে বিষয়টি অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক এবং ঘৃনিতকর্ম উল্লেখ করে বলেন, আমি দেখি বিষয়টা স্থানীয়ভাবে কোন সমাধান করা যায় কিনা? ঘটনাটা এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। সচেতনমহল ঘটনাটির নিরপেক্ষ তদন্ত পুর্বক দায়ী পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছে।