ঢাকা ১১:২৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
সাংবাদিক বিপ্লবের উপর হামলা মামলার আসামীরা গ্রেপ্তার হচ্ছেনা পীরগঞ্জে শহীদ জমিদার পরিবারের পক্ষে কুরানখানী ও মিলাদমাহফিল চাঞ্চল্যকর আকরাম হত্যা মামলা তদন্তে পুলিশের বানিজ্য-মামলা ভিন্নখাতে প্রবাহের চেষ্টা পীরগঞ্জে নিয়োগ বাণিজ্যের প্রতিবাদে মানববন্ধন হিমালয় সংলগ্ন জেলা ঠাকুরগাঁওয়ে নেই আবহাওয়া অফিস ঠাকুরগাঁওয়ে প্রাইমারীর ভাইভা পরীক্ষা দিতে গিয়ে ২ চাকরীপ্রার্থী আটক সহকারী শিক্ষক নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষা দিতে এসে ধরা খেলেন চাকরিপ্রার্থী।  ৪৬৮ এমপি এখনো বহাল সংসদ-সদস্যের সংখ্যা নিয়ে বিতর্ক জীবনে আপনি সত্যিকারের সুখী কি না যেভাবে বুঝবেন ‘নজিরবিহীন ভোটবিমুখতা’-BBC

দিল্লিতে নিজেদের বাড়িতে ১১ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু

ভারতের দিল্লির বুরারি এলাকায় নিজ বাড়ি থেকে এক পরিবারের ১১ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার মধ্যে সাতজন নারী ও চারজন পুরুষ। আজ রোববার সকালে এই লাশ উদ্ধারের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ বলছে, বাড়ির ভেতরে কয়েকটি মৃতদেহ ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া গেছে, সবারই চোখ বাঁধা ছিল। এ ছাড়া কয়েকজনের মৃতদেহ হাত, পা ও চোখ বাঁধা অবস্থায় মেঝেতে পড়ে ছিল। সবাই একসঙ্গে আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

সরকারি কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এনডিটিভি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ৭৫ বছরের এক বৃদ্ধাসহ সাত নারীর মৃতদেহ পাওয়া গেছে। এ ছাড়া চারজন পুরুষ রয়েছেন। মৃত ১১ জনের মধ্যে দুজন অপ্রাপ্তবয়স্ক।

পুলিশ আরও জানায়, পরিবারটি একটি মুদি দোকান চালাত এবং কাঠের ব্যবসা করত। বুরারির শান্তনগরের ওই দোতলা বাড়িতে তাঁরা থাকতেন। প্রতিবেশী ও স্থানীয় লোকজন জানিয়েছেন, প্রতিদিন সকাল ছয়টায় মুদি দোকানটি খুলতেন পরিবারের সদস্যরা। আজ সকাল সাড়ে সাতটা বাজার পরও কেউ দোকান না খুললে প্রতিবেশীরা খোঁজ নিতে আসেন। তখনই লাশ দেখতে পান তাঁরা।

কী কারণে এই ঘটনা ঘটেছে, তার তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ।

Tag :

ভিডিও

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

সাংবাদিক বিপ্লবের উপর হামলা মামলার আসামীরা গ্রেপ্তার হচ্ছেনা

দিল্লিতে নিজেদের বাড়িতে ১১ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু

আপডেট টাইম ০২:৪০:১৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১ জুলাই ২০১৮

ভারতের দিল্লির বুরারি এলাকায় নিজ বাড়ি থেকে এক পরিবারের ১১ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার মধ্যে সাতজন নারী ও চারজন পুরুষ। আজ রোববার সকালে এই লাশ উদ্ধারের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ বলছে, বাড়ির ভেতরে কয়েকটি মৃতদেহ ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া গেছে, সবারই চোখ বাঁধা ছিল। এ ছাড়া কয়েকজনের মৃতদেহ হাত, পা ও চোখ বাঁধা অবস্থায় মেঝেতে পড়ে ছিল। সবাই একসঙ্গে আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

সরকারি কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এনডিটিভি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ৭৫ বছরের এক বৃদ্ধাসহ সাত নারীর মৃতদেহ পাওয়া গেছে। এ ছাড়া চারজন পুরুষ রয়েছেন। মৃত ১১ জনের মধ্যে দুজন অপ্রাপ্তবয়স্ক।

পুলিশ আরও জানায়, পরিবারটি একটি মুদি দোকান চালাত এবং কাঠের ব্যবসা করত। বুরারির শান্তনগরের ওই দোতলা বাড়িতে তাঁরা থাকতেন। প্রতিবেশী ও স্থানীয় লোকজন জানিয়েছেন, প্রতিদিন সকাল ছয়টায় মুদি দোকানটি খুলতেন পরিবারের সদস্যরা। আজ সকাল সাড়ে সাতটা বাজার পরও কেউ দোকান না খুললে প্রতিবেশীরা খোঁজ নিতে আসেন। তখনই লাশ দেখতে পান তাঁরা।

কী কারণে এই ঘটনা ঘটেছে, তার তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ।