Print Print

আগামী অন্তত ৩টি নির্বাচন অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের অধীনে হতে হবে: গণসংহতি আন্দোলন

স্টাফ রিপোর্টার::  বর্তমান সরকারকে ক্ষমতায় রেখে ভোটাধিকার অর্জন সম্ভব নয়। স্বাধীনতার ৫০ বছরে সবচেয়ে বড় জালিয়াতির ঘটনা হয়েছে ২০১৮ সালের ৩০শে ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে। এতো বড় দুর্নীতি এবং দেশের ভোটারদের এতো বড় গণঅপমান এর আগে কখনো ঘটেনি বলে মনে করে গণসংহতি আন্দোলন।
বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো দলটির কেন্দ্রীয় সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য বাচ্চু ভূঁইয়া প্রেরিত এক  বিবৃতিতে আরো বলা হয়ঃ
“৩০ ডিসেম্বর ভোট ডাকাতির ৩ বছরে গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি এবং নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল বলেছেন, বর্তমান সরকারকে ক্ষমতায় রেখে ভোটাধিকার অর্জন কোনোভাবেই সম্ভব নয়। একারণে সংলাপের নামে যে তামাশা চলছে তা অবিলম্বে বন্ধ করার আহ্বান জানান নেতৃবৃন্দ।”
এছাড়া, জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিত করতে গণসংহতি আন্দোলনের ৪ দফা অবিলম্বে বাস্তবায়ন করার দাবি জানিয়েছেনঃ
১. বর্তমান সরকারকে পদত্যাগ করে অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে। আগামী অন্তত ৩টি নির্বাচন অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের অধীনে হতে হবে।
২. বিচারপতি, প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ ও সকল সাংগঠনিক পদসমূহে নিয়োগের ক্ষেত্রে সাংবিধানিক কমিশন গঠন করতে হবে।
৩. সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করে সংসদ সদস্যদের কথা বলা এবং ভোটাধিকার প্রয়োগের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে হবে।
৪. সংসদে সংখ্যানুপাতিক ভোটের ভিত্তিতে আসন বণ্টন করতে হবে।
উক্ত চার দফা বাস্তবায়নের মাধ্যমেই বাংলাদেশে জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিত হওয়া সম্ভব বলে নেতৃবৃন্দ মনে করেন।

ADs by sundarban PVC sundarban PVC Ads

ADs by Korotoa PVC Korotoa PVC Ads
ADs by Bank Asia Bank 

Asia Ads

নিচে মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *