ঢাকা ০৯:৪০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
শিক্ষার্থীরা বিপাকে, পীরগঞ্জে শতাধিক মাধ্যমিক স্কুলে শিক্ষকরা পাঠদানে হিমসিম খাচ্ছে পীরগঞ্জে ডায়াবেটিস সচেতনতা দিবস পালিত ঠাকুরগাঁয়ে বিজিবি’র উদ্দোগে আলোচনা ও মতবিনিময় সভা সাংবাদিক বিপ্লবের উপর হামলা মামলার আসামীরা গ্রেপ্তার হচ্ছেনা পীরগঞ্জে শহীদ জমিদার পরিবারের পক্ষে কুরানখানী ও মিলাদমাহফিল চাঞ্চল্যকর আকরাম হত্যা মামলা তদন্তে পুলিশের বানিজ্য-মামলা ভিন্নখাতে প্রবাহের চেষ্টা পীরগঞ্জে নিয়োগ বাণিজ্যের প্রতিবাদে মানববন্ধন হিমালয় সংলগ্ন জেলা ঠাকুরগাঁওয়ে নেই আবহাওয়া অফিস ঠাকুরগাঁওয়ে প্রাইমারীর ভাইভা পরীক্ষা দিতে গিয়ে ২ চাকরীপ্রার্থী আটক সহকারী শিক্ষক নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষা দিতে এসে ধরা খেলেন চাকরিপ্রার্থী। 

ধর্ষণের চেষ্টা থেকে বাঁচতে হোটেলের সাততলা থেকে লাফ দিলেন রাশিয়ার এক মডেল

মোসলিমা খাতুন,সারাদিন ডেস্ক:: দুবাইয়ে মার্কিন এক ব্যবসায়ীর ধর্ষণের চেষ্টা থেকে বাঁচতে হোটেলের সাততলা থেকে লাফ দিলেন রাশিয়ার এক মডেল। সাততলা থেকে লাফ দেওয়ায় তাঁর মেরুদণ্ড ভেঙে গেছে। গুরুতর আহত অবস্থায় ২২ বছর বয়সী একাতারিনা স্ট্যাটায়ুক নামের ওই মডেলকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ের একটি হোটেলের নিজের কক্ষে রাশিয়ার মডেল একাতারিনাকে শয্যাসঙ্গী হওয়ার প্রস্তাব দেন যুক্তরাষ্ট্রের এক ব্যবসায়ী। রাজি না হওয়ায় গলায় ছুরি ধরে একাতারিনাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন ট্রাম্পের দেশের ওই ব্যবসায়ী। নিজের সম্মান রক্ষা করতে সাততলা থেকে ঝাঁপ দেন একাতারিনা। মেরুদণ্ড ভেঙে এখন তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

একাতারিনা স্ট্যাটায়ুকের এমন অভিযোগ প্রকাশ্যে আসতেই দুবাই ছেড়ে পালানোর চেষ্টা করেন নাম না-জানা ওই মার্কিন ব্যবসায়ী। কিন্তু দুবাই বিমানবন্দরে আটক করা হয় তাঁকে। ওই ব্যবসায়ীর ১৫ বছরের সাজা হতে পারে বলে জানা গেছে।ওই ব্যবসায়ীর এক পাল্টা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একাতারিনাকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে দেশটির পুলিশ।

একাতারিনার বন্ধু ইরিনা গ্রোসম্যান সাংবাদিকদের বলেন, নিজের জীবন ও সম্ভ্রম বাঁচাতে একাতারিনা সাততলা থেকে ঝাঁপ দেন। অলৌকিকভাবে বেঁচে যান। একাতারিনা এখন একা চলাফেরা করতে পারেন না।

ওই মডেলের মা বলেন, ‘আমার মেয়ে একাতারিনা একজন পরিচিত ও জনপ্রিয় মডেল। একটি চুক্তি করতে ফেব্রুয়ারি মাসের ১৫ তারিখে দুবাইয়ে যায় একাতারিনা। সেখানে তার এক মাস থাকার কথা।’

হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে মাকে এক ভিডিও বার্তায় একাতারিনা বলেছেন, ‘আমি এখন কিছুটা ভালো আছি। তুমি আমার জন্য দুশ্চিন্তা কোরো না। দুবাইয়ের রাশিয়ান দূতাবাসের কর্মকর্তারা আমার সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছেন। আমার অস্ত্রোপচার পিছিয়েছে। সব ভালোই হচ্ছে মা।

Tag :

ভিডিও

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

Azam Rehman

শিক্ষার্থীরা বিপাকে, পীরগঞ্জে শতাধিক মাধ্যমিক স্কুলে শিক্ষকরা পাঠদানে হিমসিম খাচ্ছে

ধর্ষণের চেষ্টা থেকে বাঁচতে হোটেলের সাততলা থেকে লাফ দিলেন রাশিয়ার এক মডেল

আপডেট টাইম ০৮:২৭:৪২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ মার্চ ২০১৮

মোসলিমা খাতুন,সারাদিন ডেস্ক:: দুবাইয়ে মার্কিন এক ব্যবসায়ীর ধর্ষণের চেষ্টা থেকে বাঁচতে হোটেলের সাততলা থেকে লাফ দিলেন রাশিয়ার এক মডেল। সাততলা থেকে লাফ দেওয়ায় তাঁর মেরুদণ্ড ভেঙে গেছে। গুরুতর আহত অবস্থায় ২২ বছর বয়সী একাতারিনা স্ট্যাটায়ুক নামের ওই মডেলকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ের একটি হোটেলের নিজের কক্ষে রাশিয়ার মডেল একাতারিনাকে শয্যাসঙ্গী হওয়ার প্রস্তাব দেন যুক্তরাষ্ট্রের এক ব্যবসায়ী। রাজি না হওয়ায় গলায় ছুরি ধরে একাতারিনাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন ট্রাম্পের দেশের ওই ব্যবসায়ী। নিজের সম্মান রক্ষা করতে সাততলা থেকে ঝাঁপ দেন একাতারিনা। মেরুদণ্ড ভেঙে এখন তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

একাতারিনা স্ট্যাটায়ুকের এমন অভিযোগ প্রকাশ্যে আসতেই দুবাই ছেড়ে পালানোর চেষ্টা করেন নাম না-জানা ওই মার্কিন ব্যবসায়ী। কিন্তু দুবাই বিমানবন্দরে আটক করা হয় তাঁকে। ওই ব্যবসায়ীর ১৫ বছরের সাজা হতে পারে বলে জানা গেছে।ওই ব্যবসায়ীর এক পাল্টা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একাতারিনাকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে দেশটির পুলিশ।

একাতারিনার বন্ধু ইরিনা গ্রোসম্যান সাংবাদিকদের বলেন, নিজের জীবন ও সম্ভ্রম বাঁচাতে একাতারিনা সাততলা থেকে ঝাঁপ দেন। অলৌকিকভাবে বেঁচে যান। একাতারিনা এখন একা চলাফেরা করতে পারেন না।

ওই মডেলের মা বলেন, ‘আমার মেয়ে একাতারিনা একজন পরিচিত ও জনপ্রিয় মডেল। একটি চুক্তি করতে ফেব্রুয়ারি মাসের ১৫ তারিখে দুবাইয়ে যায় একাতারিনা। সেখানে তার এক মাস থাকার কথা।’

হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে মাকে এক ভিডিও বার্তায় একাতারিনা বলেছেন, ‘আমি এখন কিছুটা ভালো আছি। তুমি আমার জন্য দুশ্চিন্তা কোরো না। দুবাইয়ের রাশিয়ান দূতাবাসের কর্মকর্তারা আমার সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছেন। আমার অস্ত্রোপচার পিছিয়েছে। সব ভালোই হচ্ছে মা।