ঢাকা ০৯:০৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ মে ২০২৪, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিদেশি পতাকা ওড়ানো বন্ধে রুল

সারাদিন ডেস্ক::বিশ্বকাপ ফুটবল উপলক্ষে ১৯৭২ সালের পতাকা আইন লঙ্ঘন করে জাতীয় পতাকা ও বিভিন্ন দেশের পতাকা ওড়ানো বন্ধে প্রশাসনের নিস্ক্রিয়তা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

সোমবার (৯ জুলাই) হাইকোর্টের বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি মো. সেলিমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে স্বরাষ্ট্র সচিব, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, তথ্য সচিবসহ চারজনকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে আজ রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট গাজী ফরহাদ রেজা। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারি অ্যাটর্নি জেনারেল জাকির হোসেন রিপন।

এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. মনজুরুল হকসহ ১৩ জন এই রিট আবেদনটি দায়ের করেন। তারও আগে গত ২৮ মে ফুটবল বিশ্বকাপ ২০১৮ চলাকালে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে বিদেশি পতাকার অননুমোদিত ব্যবহার বন্ধে হাইকোর্টে রিট আরেকটি রিট দায়ের করা হয়েছিল।

ওই রিট আবেদনে বলা হয়, গত ১৪ জুন থেকে রাশিয়ায় ফুটবল বিশ্বকাপ-২০১৮ অনুষ্ঠিত হয়। অতীতে সবসময় দেখা গেছে, ফুটবল বিশ্বকাপ চলাকালে বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন দলের বাংলাদেশি সমর্থকেরা বাংলাদেশের বহু স্থানে বিদেশি পতাকা উত্তোলন করেন। বিশেষত আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, জার্মানি ইত্যাদি দেশের বড় বড় পতাকায় সারা বাংলাদেশ ছেয়ে যায়। অথচ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের পতাকা বিধিমালা, ১৯৭২-এর বিধান অনুযায়ী, বাংলাদেশে অবস্থিত বিদেশি কূটনৈতিক মিশনসমূহ ছাড়া অন্য কোনো স্থানে বিদেশি রাষ্ট্রের পতাকা উত্তোলন করতে হলে বাংলাদেশ সরকারের বিশেষ অনুমোদন নিতে হয়।

সেই বিধান লঙ্ঘন করে ফুটবল বিশ্বকাপ চলাকালে নির্বিচারে দেশব্যাপী বিদেশি পতাকা উত্তোলন করা হয়। যা বেআইনি। তাই রিট আবেদন করা হয়। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত আজ এই রুল জারি করেন।

Tag :

ভিডিও

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

Azam Rehman

বিদেশি পতাকা ওড়ানো বন্ধে রুল

আপডেট টাইম ০৬:০৬:৫৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১১ জুলাই ২০১৮

সারাদিন ডেস্ক::বিশ্বকাপ ফুটবল উপলক্ষে ১৯৭২ সালের পতাকা আইন লঙ্ঘন করে জাতীয় পতাকা ও বিভিন্ন দেশের পতাকা ওড়ানো বন্ধে প্রশাসনের নিস্ক্রিয়তা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

সোমবার (৯ জুলাই) হাইকোর্টের বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি মো. সেলিমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে স্বরাষ্ট্র সচিব, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, তথ্য সচিবসহ চারজনকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে আজ রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট গাজী ফরহাদ রেজা। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারি অ্যাটর্নি জেনারেল জাকির হোসেন রিপন।

এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. মনজুরুল হকসহ ১৩ জন এই রিট আবেদনটি দায়ের করেন। তারও আগে গত ২৮ মে ফুটবল বিশ্বকাপ ২০১৮ চলাকালে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে বিদেশি পতাকার অননুমোদিত ব্যবহার বন্ধে হাইকোর্টে রিট আরেকটি রিট দায়ের করা হয়েছিল।

ওই রিট আবেদনে বলা হয়, গত ১৪ জুন থেকে রাশিয়ায় ফুটবল বিশ্বকাপ-২০১৮ অনুষ্ঠিত হয়। অতীতে সবসময় দেখা গেছে, ফুটবল বিশ্বকাপ চলাকালে বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন দলের বাংলাদেশি সমর্থকেরা বাংলাদেশের বহু স্থানে বিদেশি পতাকা উত্তোলন করেন। বিশেষত আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, জার্মানি ইত্যাদি দেশের বড় বড় পতাকায় সারা বাংলাদেশ ছেয়ে যায়। অথচ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের পতাকা বিধিমালা, ১৯৭২-এর বিধান অনুযায়ী, বাংলাদেশে অবস্থিত বিদেশি কূটনৈতিক মিশনসমূহ ছাড়া অন্য কোনো স্থানে বিদেশি রাষ্ট্রের পতাকা উত্তোলন করতে হলে বাংলাদেশ সরকারের বিশেষ অনুমোদন নিতে হয়।

সেই বিধান লঙ্ঘন করে ফুটবল বিশ্বকাপ চলাকালে নির্বিচারে দেশব্যাপী বিদেশি পতাকা উত্তোলন করা হয়। যা বেআইনি। তাই রিট আবেদন করা হয়। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত আজ এই রুল জারি করেন।