ঢাকা ১২:১৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গণসংবর্ধনার অনুষ্ঠান শুরু

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দেয়া গণসংবর্ধনার অনুষ্ঠানটি শুরু হয়েছে। বেলা ৩.৩৩ মিনিটের দিকে অনুষ্ঠানস্থলে (মঞ্চে) এসে পৌছান আওয়ামী লীগের সভাপতি। এরপর পরই আয়োজনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মূল মঞ্চে পৌছাতেই “শেখ হাসিনা, শেখ হাসিনা” শ্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠে পুরো অনুষ্ঠানস্থল। মঞ্চে দাড়িয়ে হাত নাড়িয়ে নেতা-কর্মীদের উচ্ছাসের সঙ্গে একাত্নতা প্রকাশ করেন জাতির জনকের কন্যা। নেতা কর্মীদের হাতেও ছিলো পতাকাসহ প্রধানমন্্ত্রীর ছবি সম্বলিত নানা প্ল্যকার্ড। সাংস্কৃতিক অয়োজন পরিবেশনের মাধ্যমে শুরু হয় অনুষ্ঠানটি। অবশ্য বেলা ২টার পর থেকেই মঞ্চে গান পরিবেশন করছিলেন শিল্পিরা। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের পাশাপাশি শুভ্রদেব, এসডি রুবেল ও মমতাজসহ অন্যন্য শিল্পীরা যেখানে গান পরিবেশন করেন। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী এই অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করছেন। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়, দলের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালসহ অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন। কয়েকটি ইস্যুতে কাঙ্খিত সাফল্য অর্জন করায় দলীয় প্রধানকে গণসংবর্ধনা দিচ্ছে আওয়ামী লীগ। প্রধানমন্ত্রীকে দেয়া গণসংবর্ধনার এ অনুষ্ঠানে নেতা কর্মীদের ছিলো গণজোয়ার। মধ্যম আয়ের দেশে উত্তরণের প্রাথমিক যোগ্যতা অর্জন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ, গ্লোবাল উইমেন্স লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড, কলকাতা থেকে ডি-লিট উপাধি পাওয়াসহ নানা সাফল্যের স্বীকৃতি হিসেবে প্রধানমন্ত্রী এ সংবর্ধনা দেয়া হচ্ছে। অনুষ্ট়ানে সকাল ১১ টা থেকেই ফেস্টুন, ব্যানার, প্ল্যাকার্ড হাতে যোগ দিয়েছেন নেতা কর্মীরা।

Tag :

ভিডিও

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

Azam Rehman

জনপ্রিয় সংবাদ

গণসংবর্ধনার অনুষ্ঠান শুরু

আপডেট টাইম ০৪:০৩:০৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২১ জুলাই ২০১৮

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দেয়া গণসংবর্ধনার অনুষ্ঠানটি শুরু হয়েছে। বেলা ৩.৩৩ মিনিটের দিকে অনুষ্ঠানস্থলে (মঞ্চে) এসে পৌছান আওয়ামী লীগের সভাপতি। এরপর পরই আয়োজনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মূল মঞ্চে পৌছাতেই “শেখ হাসিনা, শেখ হাসিনা” শ্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠে পুরো অনুষ্ঠানস্থল। মঞ্চে দাড়িয়ে হাত নাড়িয়ে নেতা-কর্মীদের উচ্ছাসের সঙ্গে একাত্নতা প্রকাশ করেন জাতির জনকের কন্যা। নেতা কর্মীদের হাতেও ছিলো পতাকাসহ প্রধানমন্্ত্রীর ছবি সম্বলিত নানা প্ল্যকার্ড। সাংস্কৃতিক অয়োজন পরিবেশনের মাধ্যমে শুরু হয় অনুষ্ঠানটি। অবশ্য বেলা ২টার পর থেকেই মঞ্চে গান পরিবেশন করছিলেন শিল্পিরা। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের পাশাপাশি শুভ্রদেব, এসডি রুবেল ও মমতাজসহ অন্যন্য শিল্পীরা যেখানে গান পরিবেশন করেন। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী এই অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করছেন। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়, দলের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালসহ অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন। কয়েকটি ইস্যুতে কাঙ্খিত সাফল্য অর্জন করায় দলীয় প্রধানকে গণসংবর্ধনা দিচ্ছে আওয়ামী লীগ। প্রধানমন্ত্রীকে দেয়া গণসংবর্ধনার এ অনুষ্ঠানে নেতা কর্মীদের ছিলো গণজোয়ার। মধ্যম আয়ের দেশে উত্তরণের প্রাথমিক যোগ্যতা অর্জন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ, গ্লোবাল উইমেন্স লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড, কলকাতা থেকে ডি-লিট উপাধি পাওয়াসহ নানা সাফল্যের স্বীকৃতি হিসেবে প্রধানমন্ত্রী এ সংবর্ধনা দেয়া হচ্ছে। অনুষ্ট়ানে সকাল ১১ টা থেকেই ফেস্টুন, ব্যানার, প্ল্যাকার্ড হাতে যোগ দিয়েছেন নেতা কর্মীরা।