ঢাকা ০৪:৫৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
গৃহবধুকে ধর্ষনের পর হত্যা, ২ ঘাতক গ্রেপ্তার ঠাকুরগাঁওয়ে দ্বিতীয় ধাপে দু’টি উপজেলায় নতুন প্রার্থী বিজয়ী ঠাকুরগাঁওয়ে দ্বিতীয় ধাপে দু’টি উপজেলায় নতুন প্রার্থী বিজয়ী উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ায় সুকুমার রায়কে বিএনপি থেকে বহিষ্কার ঠাকুরগাঁও নারকোটিকস এর অভিযানে ভারতীয় টার্পেন্টাডল ট্যাবলেটের চালান ঠাকুরগাঁওয়ে নারকোটিকস’র অভিযানে মাদকের বড় চালান আটক পীরগঞ্জে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উপলক্ষে সভা অনুষ্ঠিত পীরগঞ্জে ৩০ পিস টার্পেন্টাডল সহ ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক পীরগঞ্জে ১৫০ গ্রাম শুকনো গাজা সহ ব্যবসায়ী আটক ঠাকুরগাঁওয়ে ঠিকাদারদের নিয়ে এলজিইডি’র দিনব্যাপী কর্মশালা

‘ভাইজান এলো রে’

আজম রেহমান,সারাদিন ডেস্ক:: পুরোদমে শুটিং শুরুর আগে চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস ছেলে জয়কে নিয়ে কয়েক দিনের জন্য ভারতে ঘুরে আসার পরিকল্পনা করেন। পরিকল্পনা অনুযায়ী কলকাতা হয়ে শিলিগুড়ি যাওয়ার আগে গতকাল রোববার সন্ধ্যায় জয়ের বাবা শাকিব খানের সঙ্গে দেখা হয় অপুর। ওই সময় কলকাতায় ‘ভাইজান এলো রে’ ছবির ফটোশুটে অংশ নেন শাকিব খান। অনেক দিন পর ছেলেকে কাছে পেয়ে দারুণ খুশি হন তিনি। এ সময় তাঁর সঙ্গে আরও ছিলেন ছবির নায়িকা শ্রাবন্তী ও পায়েল। জয়কে কোলে নিয়ে শ্রাবন্তী শাকিব খানের সঙ্গে এবং অপু বিশ্বাসের সঙ্গেও ছবি তোলেন। জয়কে কোলে নিয়ে শাকিব খানের সঙ্গে শ্রাবন্তীর ছবিটি গতকাল রাতেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এসকে মুভিজের পেজে পোস্ট করা হয়। ‘ভাইজান এলো রে’ ছবির প্রযোজনা করছে এসকে মুভিজ।

জানা গেছে, দেড় ঘণ্টার এই সাক্ষাতে শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের মধ্যে কোনো কথা হয়নি! ফটোশুটে উপস্থিত লোকজনের সঙ্গে কথা বলে এ ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তখন শাকিবের সঙ্গে ছিলেন ‘ভাইজান এলো রে’ ছবির দুই নায়িকা শ্রাবন্তী, পায়েল সরকারসহ সংশ্লিষ্ট অনেকে। তাঁদের অনেকের সঙ্গেই অপুর কথা হয়, শুধু শাকিব ছাড়া।

পরে শাকিব বলেন, ‘আমাদের মধ্যে এখন যেহেতু কোনো সম্পর্ক নেই, তাই অকারণে কথা বলার দরকার নেই। অতীত নিয়ে আর পড়ে থাকতে চাই না। তবে আমি চাই, অপু তার মতো করে ভালো থাকুক।’শাকিব খান জানান, কলকাতায় ছেলেকে কাছে পাওয়া তাঁর জন্য ছিল বড় ‘চমক’। তিনি বলেন, ‘আমি তখন ছবি আর পত্রিকার ফটোশুট নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। আমার সঙ্গে ছিলেন শ্রাবন্তী ও পায়েল সরকার। এ সময় জানতে পারি, জয় তার মায়ের সঙ্গে কলকাতা থেকে শিলিগুড়ি যাচ্ছে। এরপর আমি অপুর সহযোগীর সঙ্গে যোগাযোগ করি। জয়ের আসার খবরে শ্রাবন্তী ও পায়েলসহ সেটের সবাই খুশি হয়। সন্ধ্যার দিকে জয় তার মায়ের সঙ্গে শুটিং স্পটে আসে। এখানে ঘণ্টা দেড়েক ছিল। ওকে শুটিং সেটে পেয়ে কেউ কোল থেকে নামাচ্ছিল না। এরপর জয়কে নিয়ে কেনাকাটা করতে চলে যাই।’

এদিকে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অনেকের মতে, শাকিব ও অপুর ব্যক্তিজীবন নিয়ে অনেক টানাহেঁচড়া হয়েছে। এখন এসব নিয়ে আর কথা বলার কোনো মানে হয় না। যা হওয়ার তা পুরো জাতি দেখেছে। এখন তাঁরা দুজন কাজে মনোযোগ দিক।

এক দশক ধরে বড় পর্দায় জুটি ছিলেন শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। কাজ করেছেন ৭০টি ছবিতে। ২০০৮ সালে বিয়ে করে টানা নয় বছর গোপনে সংসার করেছেন শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। ২০১৭ সালের এপ্রিলে যখন বিয়ের ব্যাপারটি সামনে চলে আসে, তখন দুজনের মধ্যে টানাপোড়েন শুরু হয়। বন্ধ হয়ে যায় দেখাদেখি। সম্প্রতি শাকিব-অপুর দাম্পত্য জীবনের অবসান ঘটেছে। শাকিব আগে থেকেই কাজে ব্যস্ত থাকলেও অপু এখন চলচ্চিত্রে ব্যস্ত হওয়ার চেষ্টা করছেন।

Tag :

ভিডিও

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

Azam Rehman

গৃহবধুকে ধর্ষনের পর হত্যা, ২ ঘাতক গ্রেপ্তার

‘ভাইজান এলো রে’

আপডেট টাইম ০৯:০৭:৩৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ মার্চ ২০১৮

আজম রেহমান,সারাদিন ডেস্ক:: পুরোদমে শুটিং শুরুর আগে চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস ছেলে জয়কে নিয়ে কয়েক দিনের জন্য ভারতে ঘুরে আসার পরিকল্পনা করেন। পরিকল্পনা অনুযায়ী কলকাতা হয়ে শিলিগুড়ি যাওয়ার আগে গতকাল রোববার সন্ধ্যায় জয়ের বাবা শাকিব খানের সঙ্গে দেখা হয় অপুর। ওই সময় কলকাতায় ‘ভাইজান এলো রে’ ছবির ফটোশুটে অংশ নেন শাকিব খান। অনেক দিন পর ছেলেকে কাছে পেয়ে দারুণ খুশি হন তিনি। এ সময় তাঁর সঙ্গে আরও ছিলেন ছবির নায়িকা শ্রাবন্তী ও পায়েল। জয়কে কোলে নিয়ে শ্রাবন্তী শাকিব খানের সঙ্গে এবং অপু বিশ্বাসের সঙ্গেও ছবি তোলেন। জয়কে কোলে নিয়ে শাকিব খানের সঙ্গে শ্রাবন্তীর ছবিটি গতকাল রাতেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এসকে মুভিজের পেজে পোস্ট করা হয়। ‘ভাইজান এলো রে’ ছবির প্রযোজনা করছে এসকে মুভিজ।

জানা গেছে, দেড় ঘণ্টার এই সাক্ষাতে শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের মধ্যে কোনো কথা হয়নি! ফটোশুটে উপস্থিত লোকজনের সঙ্গে কথা বলে এ ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তখন শাকিবের সঙ্গে ছিলেন ‘ভাইজান এলো রে’ ছবির দুই নায়িকা শ্রাবন্তী, পায়েল সরকারসহ সংশ্লিষ্ট অনেকে। তাঁদের অনেকের সঙ্গেই অপুর কথা হয়, শুধু শাকিব ছাড়া।

পরে শাকিব বলেন, ‘আমাদের মধ্যে এখন যেহেতু কোনো সম্পর্ক নেই, তাই অকারণে কথা বলার দরকার নেই। অতীত নিয়ে আর পড়ে থাকতে চাই না। তবে আমি চাই, অপু তার মতো করে ভালো থাকুক।’শাকিব খান জানান, কলকাতায় ছেলেকে কাছে পাওয়া তাঁর জন্য ছিল বড় ‘চমক’। তিনি বলেন, ‘আমি তখন ছবি আর পত্রিকার ফটোশুট নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। আমার সঙ্গে ছিলেন শ্রাবন্তী ও পায়েল সরকার। এ সময় জানতে পারি, জয় তার মায়ের সঙ্গে কলকাতা থেকে শিলিগুড়ি যাচ্ছে। এরপর আমি অপুর সহযোগীর সঙ্গে যোগাযোগ করি। জয়ের আসার খবরে শ্রাবন্তী ও পায়েলসহ সেটের সবাই খুশি হয়। সন্ধ্যার দিকে জয় তার মায়ের সঙ্গে শুটিং স্পটে আসে। এখানে ঘণ্টা দেড়েক ছিল। ওকে শুটিং সেটে পেয়ে কেউ কোল থেকে নামাচ্ছিল না। এরপর জয়কে নিয়ে কেনাকাটা করতে চলে যাই।’

এদিকে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অনেকের মতে, শাকিব ও অপুর ব্যক্তিজীবন নিয়ে অনেক টানাহেঁচড়া হয়েছে। এখন এসব নিয়ে আর কথা বলার কোনো মানে হয় না। যা হওয়ার তা পুরো জাতি দেখেছে। এখন তাঁরা দুজন কাজে মনোযোগ দিক।

এক দশক ধরে বড় পর্দায় জুটি ছিলেন শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। কাজ করেছেন ৭০টি ছবিতে। ২০০৮ সালে বিয়ে করে টানা নয় বছর গোপনে সংসার করেছেন শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। ২০১৭ সালের এপ্রিলে যখন বিয়ের ব্যাপারটি সামনে চলে আসে, তখন দুজনের মধ্যে টানাপোড়েন শুরু হয়। বন্ধ হয়ে যায় দেখাদেখি। সম্প্রতি শাকিব-অপুর দাম্পত্য জীবনের অবসান ঘটেছে। শাকিব আগে থেকেই কাজে ব্যস্ত থাকলেও অপু এখন চলচ্চিত্রে ব্যস্ত হওয়ার চেষ্টা করছেন।