ঢাকা ০২:৩১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনপির সংবাদ সম্মেলন

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি :: গত ২৯ মার্চ ঠাকুরগাঁও বড় মাঠে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভার বক্তব্যের মিথ্যাচারের প্রতিবাদের সংবাদ সম্মেলন করেছে ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপি।

শনিবার বিকালে জেলা বিএনপির আয়োজনে তাদের নিজেস্ব কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠত হয়।

এসময় জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সাল আমিন একটি লিখিত অভিযোগে বলেন :- “ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২৯ মার্চ ঠাকুরগাঁওয়ে যে ভাষন আমাদের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সম্পর্কে দিয়েছেন তা কোন গণতান্ত্রিক দেশের ভদ্র প্রধানমন্ত্রীর ভাষা হতে পারেনা। রুচি বিবর্জিত অসুস্থ বক্তব্যের মাঝে তিনি এটাই প্রমান করেছেন যে বিরোধী পক্ষকে গালাগালি ছাড়া তার অন্য কোন কাজ নেই।” আমার তার এই বক্তব্যের তৃব্য নিন্দা জানাই।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী বড়মাঠের জনসভায় নির্বচনী আচরণবিধি লঙ্গণ করে সরকারি খরচে নৌকা মার্কার পক্ষে ভোট চেয়েছেন। তিনি উন্নয়নের যে আশ্বাসগুলি দিয়েছেন তা বাস্তবায়নে সুনিদিষ্ট কোন দিন তারিখ উল্লেখ না করায় ঠাকুরগাঁওবাসী চরম হতাশে পরেছেন।

এসময় অন্যদের মাঝে উপিস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির সাভাপতি তৈমুর রহমান, সহ-সভাপতি ওবায়দুল্লাহ মাসুদ, জেলা যুবদলের সভাপতি মাহবুল্লাহ আবু নূর, সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব হোসেন তুহিন, জেলা মহিলা দলের সভাপতি ফুরাতুন নাহার প্যারিস সহ জেলার সকল নেতাকর্মীরা।

Tag :

ভিডিও

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

Azam Rehman

ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনপির সংবাদ সম্মেলন

আপডেট টাইম ০৬:০৩:০৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩১ মার্চ ২০১৮

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি :: গত ২৯ মার্চ ঠাকুরগাঁও বড় মাঠে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভার বক্তব্যের মিথ্যাচারের প্রতিবাদের সংবাদ সম্মেলন করেছে ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপি।

শনিবার বিকালে জেলা বিএনপির আয়োজনে তাদের নিজেস্ব কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠত হয়।

এসময় জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সাল আমিন একটি লিখিত অভিযোগে বলেন :- “ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২৯ মার্চ ঠাকুরগাঁওয়ে যে ভাষন আমাদের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সম্পর্কে দিয়েছেন তা কোন গণতান্ত্রিক দেশের ভদ্র প্রধানমন্ত্রীর ভাষা হতে পারেনা। রুচি বিবর্জিত অসুস্থ বক্তব্যের মাঝে তিনি এটাই প্রমান করেছেন যে বিরোধী পক্ষকে গালাগালি ছাড়া তার অন্য কোন কাজ নেই।” আমার তার এই বক্তব্যের তৃব্য নিন্দা জানাই।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী বড়মাঠের জনসভায় নির্বচনী আচরণবিধি লঙ্গণ করে সরকারি খরচে নৌকা মার্কার পক্ষে ভোট চেয়েছেন। তিনি উন্নয়নের যে আশ্বাসগুলি দিয়েছেন তা বাস্তবায়নে সুনিদিষ্ট কোন দিন তারিখ উল্লেখ না করায় ঠাকুরগাঁওবাসী চরম হতাশে পরেছেন।

এসময় অন্যদের মাঝে উপিস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির সাভাপতি তৈমুর রহমান, সহ-সভাপতি ওবায়দুল্লাহ মাসুদ, জেলা যুবদলের সভাপতি মাহবুল্লাহ আবু নূর, সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব হোসেন তুহিন, জেলা মহিলা দলের সভাপতি ফুরাতুন নাহার প্যারিস সহ জেলার সকল নেতাকর্মীরা।