ঢাকা ০৫:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
পীরগঞ্জে মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় কিশোরের মৃত্যু জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি সহ ৫ নেতার পীরগঞ্জে সংবর্ধনা ১৫০ পিস টার্পেন্টাডল সহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার প্রতিবন্ধী ভাতাভোগীদের অর্থ আত্মসাৎকারী চক্রের গ্রেফতার বিষয়ে ঠাকুরগাঁওয়ে সংবাদ সম্মেলন ঠাকুরগাঁওয়ে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় কমিউনিটি পুলিশিং সভা পীরগঞ্জে পেট্রোল পাম্পে ‘নো হেলমেট নো ফুয়েল’ ক্যাম্পিং পীরগঞ্জে স্কুল ছাত্রীকে উত্যক্ত করার দায়ে ইভটিজারের ১৫ দিনের জেল পীরগঞ্জে ভূমিসেবা সপ্তাহ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ও আলোচনা সভা রক্ষক যখন ভক্ষকের ভূমিকায় ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে সম্পর্কের পর অস্বীকার, এলাকায় তোলপাড় ঠাকুরগাঁও জেলার শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত হয়েছে পীরগঞ্জ থানা

৪৫ বছর ধরে স্বামী-স্ত্রী ভিক্ষাবৃত্তি করেও বয়স্ক ভাতা পায়নি

Exif_JPEG_420

বালিয়াডাঙ্গী (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি: এনএম নুরুল ইসলাম ॥ ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ৮নং বড়বাড়ী ইউনিয়নের গোয়ালকারী গ্রামের আলিম উদ্দীন (পচকটু) ও তার স্ত্রী রশিদা খাতুন ৪৫ বছর ধরে ভিক্ষাবৃত্তি করে অতি কষ্টে দিন কাটাচ্ছে। রশিদার স্বামীর কোনো বাড়ি ভিটামাটি নেই। রশিদা খাতুন ও তার স্বামী শেষ পর্যায়ে জীবনটুকু বেঁচে থাকার জন্য এই গ্রামে মানুষের বাড়িতে কাজ ও ভিক্ষাবৃত্তি করে জীবনযাপন করছে।

আজ ৪৫ বছর যাবত দু’জনের মধ্যে কেউই কোন প্রকার ভাতা কিংবা বয়স্ক ভাতা পাইনি বলে স্বামী স্ত্রী মানবেতর জীবনযাপন করছে। তাদের জীবনে প্রায় শেষ পর্যায়ে এসে তারা এখন সর্বহারা। তাদের দেখাশুনা করার মত কেউ নেই। মাথা গোজার ঠাঁই নেই। এই গ্রামে তবুও তারা গোয়ালকারী গ্রামে জীবনের শেষ নিঃশ্বাসটুকু ফেলার জন্য সাহায্য এবং থাকার জন্য তাদের একটু ঠিকানার প্রয়োজন। এমতবস্থায় তারা ভিক্ষাকৃত্তি করে মানুষের দ্বারাদ্বারে ঘুরে করুণ দিন-যাপন করছে। এখন তাদের জীবনের শেষ মুহূর্ত হলেও একটা বয়স্ক ভাতার জন্য আকুল আবেদন জানিয়েছে কর্তৃপক্ষের কাছে।

Tag :

ভিডিও

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

Azam Rehman

জনপ্রিয় সংবাদ

পীরগঞ্জে মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় কিশোরের মৃত্যু

৪৫ বছর ধরে স্বামী-স্ত্রী ভিক্ষাবৃত্তি করেও বয়স্ক ভাতা পায়নি

আপডেট টাইম ০৭:৩৫:০৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৮ জানুয়ারী ২০১৯

বালিয়াডাঙ্গী (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি: এনএম নুরুল ইসলাম ॥ ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ৮নং বড়বাড়ী ইউনিয়নের গোয়ালকারী গ্রামের আলিম উদ্দীন (পচকটু) ও তার স্ত্রী রশিদা খাতুন ৪৫ বছর ধরে ভিক্ষাবৃত্তি করে অতি কষ্টে দিন কাটাচ্ছে। রশিদার স্বামীর কোনো বাড়ি ভিটামাটি নেই। রশিদা খাতুন ও তার স্বামী শেষ পর্যায়ে জীবনটুকু বেঁচে থাকার জন্য এই গ্রামে মানুষের বাড়িতে কাজ ও ভিক্ষাবৃত্তি করে জীবনযাপন করছে।

আজ ৪৫ বছর যাবত দু’জনের মধ্যে কেউই কোন প্রকার ভাতা কিংবা বয়স্ক ভাতা পাইনি বলে স্বামী স্ত্রী মানবেতর জীবনযাপন করছে। তাদের জীবনে প্রায় শেষ পর্যায়ে এসে তারা এখন সর্বহারা। তাদের দেখাশুনা করার মত কেউ নেই। মাথা গোজার ঠাঁই নেই। এই গ্রামে তবুও তারা গোয়ালকারী গ্রামে জীবনের শেষ নিঃশ্বাসটুকু ফেলার জন্য সাহায্য এবং থাকার জন্য তাদের একটু ঠিকানার প্রয়োজন। এমতবস্থায় তারা ভিক্ষাকৃত্তি করে মানুষের দ্বারাদ্বারে ঘুরে করুণ দিন-যাপন করছে। এখন তাদের জীবনের শেষ মুহূর্ত হলেও একটা বয়স্ক ভাতার জন্য আকুল আবেদন জানিয়েছে কর্তৃপক্ষের কাছে।