ঢাকা ০৪:৪৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
শিক্ষার্থীরা বিপাকে, পীরগঞ্জে শতাধিক মাধ্যমিক স্কুলে শিক্ষকরা পাঠদানে হিমসিম খাচ্ছে পীরগঞ্জে ডায়াবেটিস সচেতনতা দিবস পালিত ঠাকুরগাঁয়ে বিজিবি’র উদ্দোগে আলোচনা ও মতবিনিময় সভা সাংবাদিক বিপ্লবের উপর হামলা মামলার আসামীরা গ্রেপ্তার হচ্ছেনা পীরগঞ্জে শহীদ জমিদার পরিবারের পক্ষে কুরানখানী ও মিলাদমাহফিল চাঞ্চল্যকর আকরাম হত্যা মামলা তদন্তে পুলিশের বানিজ্য-মামলা ভিন্নখাতে প্রবাহের চেষ্টা পীরগঞ্জে নিয়োগ বাণিজ্যের প্রতিবাদে মানববন্ধন হিমালয় সংলগ্ন জেলা ঠাকুরগাঁওয়ে নেই আবহাওয়া অফিস ঠাকুরগাঁওয়ে প্রাইমারীর ভাইভা পরীক্ষা দিতে গিয়ে ২ চাকরীপ্রার্থী আটক সহকারী শিক্ষক নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষা দিতে এসে ধরা খেলেন চাকরিপ্রার্থী। 

প্রকল্পের কাজে অনিয়ম: উপজেলা প্রকৌশলী বরখাস্ত

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট:: সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষ নির্মাণে ঠিকাদারের সাথে যোগসাজশের মাধ্যমে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে নরসিংদী সদর উপজেলার সাবেক উপজেলা প্রকৌশলী বিপ্লব পালকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ।

নরসিংদী সদর উপজেলার বালুসাইর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষ নির্মাণ প্রকল্পসহ চলমান উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের যথাযথ তদারকি না করায় তাকে বরখাস্ত করা হয়।

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

সেই সাথে প্রকল্পসমূহের কাজ স্পেসিফিকেশন অনুযায়ী বাস্তবায়িত না হওয়ায় সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন এবং সরকারি অর্থের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত হয়নি, সে কারণে সরকারি কাজে অবহেলা ও দায়িত্বহীনতার কারণে নরসিংদীর এলজিইডি নির্বাহী প্রকৌশলীর কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর বাস্তবায়নাধীন বিদ্যালয়টির শ্রেণিকক্ষ নির্মাণ প্রকল্পে নিম্নমানের কাজ এবং আঁকাবাঁকা গ্রেড বিম ও ড্রপ ওয়াল নির্মাণের ফলে যেকোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এ জন্য বিদ্যালয়টির শ্রেণিকক্ষ সম্পূর্ণ ভেঙে নতুনভাবে তৈরি করতে হবে। এছাড়া প্রকল্পটির প্রাক্কলিত মূল্য ৮৭ লাখ ৭৭ হাজার ২৮৭ টাকা। এরমধ্যে ২৫ লাখ ২ হাজার ২৩২ টাকা ইতোমধ্যে ঠিকাদারকে বিল হিসেবে দেওয়া হয়েছে, যেখানে কাজের অগ্রগতি ৩০ ভাগ দেখানো হয়েছে।

ঠিকাদারের সাথে পরস্পর যোগসাজশের মাধ্যমে উপজেলা প্রকৌশলী বিপ্লব পাল অর্থ আত্মসাৎ করেছেন, যা প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়েছে বলেও প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়। এছাড়া সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন এবং সরকারি কাজে অবহেলা ও দায়িত্বহীনতার অভিযোগও আনা হয় তার বিরুদ্ধে।

প্রকৌশলী বিপ্লব পাল নরসিংদী সদর উপজেলা প্রকৌশলী হিসেবে কর্মরত থাকাকালে এই অনিয়মের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিপ্লব পালের বিরুদ্ধে সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপীল) বিধিমালা, ২০১৮ এর বিধি ৩ (খ) ও (ঘ) এর অধীনে অভিযোগ আনা হয় এবং সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপীল) বিধিমালা, ২০১৮ এর ১২ বিধি অনুযায়ী তাকে সরকারি চাকরি হতে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

Tag :

ভিডিও

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

Azam Rehman

শিক্ষার্থীরা বিপাকে, পীরগঞ্জে শতাধিক মাধ্যমিক স্কুলে শিক্ষকরা পাঠদানে হিমসিম খাচ্ছে

প্রকল্পের কাজে অনিয়ম: উপজেলা প্রকৌশলী বরখাস্ত

আপডেট টাইম ০১:১৫:০৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট:: সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষ নির্মাণে ঠিকাদারের সাথে যোগসাজশের মাধ্যমে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে নরসিংদী সদর উপজেলার সাবেক উপজেলা প্রকৌশলী বিপ্লব পালকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ।

নরসিংদী সদর উপজেলার বালুসাইর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষ নির্মাণ প্রকল্পসহ চলমান উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের যথাযথ তদারকি না করায় তাকে বরখাস্ত করা হয়।

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

সেই সাথে প্রকল্পসমূহের কাজ স্পেসিফিকেশন অনুযায়ী বাস্তবায়িত না হওয়ায় সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন এবং সরকারি অর্থের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত হয়নি, সে কারণে সরকারি কাজে অবহেলা ও দায়িত্বহীনতার কারণে নরসিংদীর এলজিইডি নির্বাহী প্রকৌশলীর কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর বাস্তবায়নাধীন বিদ্যালয়টির শ্রেণিকক্ষ নির্মাণ প্রকল্পে নিম্নমানের কাজ এবং আঁকাবাঁকা গ্রেড বিম ও ড্রপ ওয়াল নির্মাণের ফলে যেকোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এ জন্য বিদ্যালয়টির শ্রেণিকক্ষ সম্পূর্ণ ভেঙে নতুনভাবে তৈরি করতে হবে। এছাড়া প্রকল্পটির প্রাক্কলিত মূল্য ৮৭ লাখ ৭৭ হাজার ২৮৭ টাকা। এরমধ্যে ২৫ লাখ ২ হাজার ২৩২ টাকা ইতোমধ্যে ঠিকাদারকে বিল হিসেবে দেওয়া হয়েছে, যেখানে কাজের অগ্রগতি ৩০ ভাগ দেখানো হয়েছে।

ঠিকাদারের সাথে পরস্পর যোগসাজশের মাধ্যমে উপজেলা প্রকৌশলী বিপ্লব পাল অর্থ আত্মসাৎ করেছেন, যা প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়েছে বলেও প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়। এছাড়া সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন এবং সরকারি কাজে অবহেলা ও দায়িত্বহীনতার অভিযোগও আনা হয় তার বিরুদ্ধে।

প্রকৌশলী বিপ্লব পাল নরসিংদী সদর উপজেলা প্রকৌশলী হিসেবে কর্মরত থাকাকালে এই অনিয়মের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিপ্লব পালের বিরুদ্ধে সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপীল) বিধিমালা, ২০১৮ এর বিধি ৩ (খ) ও (ঘ) এর অধীনে অভিযোগ আনা হয় এবং সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপীল) বিধিমালা, ২০১৮ এর ১২ বিধি অনুযায়ী তাকে সরকারি চাকরি হতে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।